এবার রাখি অস্ত্র চিনের ওপর প্রয়োগে ভারত

278

নয়াদিল্লিঃ ঠাণ্ডা লড়াইয়ের অব্যহতি কোথাও শেষ হয়েও যেন হচ্ছে না শেষ। তবে এবার দেশীয় বাজারে এক বড়সড় রাশ টানল ভারত। ভারতের বাজারে পুরোপুরি বয়কট করা হল চিনা রাখি। লাদাখ সীমান্তে সংঘর্ষের পর দেশজুড়ে আরও বলিয়ান হয়েছে কণ্ঠ। উঠেছে ‘বয়কট চায়না’ স্লোগান।

সোমবার গোটা দেশ জুরে পালিত হচ্ছে সৌভ্রাতৃত্ব ও সম্প্রীতির উৎসব অর্থাৎ রাখি বন্ধন উৎসব। ভারত চিন সংঘাতের কথা ভোলেনি দেশবাসী। আর তাঁরই জের এবার রাখির বাজারেও। ফলপ্রসূ এবছর শুধুমাত্র রাখির মরসুমেই ৪ হাজার কোটি টাকা ক্ষতি হয়েছে ভারতের প্রতিবেশী দেশ চিনের। সীমান্ত বিবাদ নিয়ে দু’দেশের উত্তেজনার মধ্যেই এই পরিসংখ্যান সামনে এনেছে দেশের অন্যতম ব্যবসায়ী সংগঠন কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স (সিএআইটি)।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, লাদাখ ইস্যুতে চিন-ভারত সংঘাতের আবহ জারি রয়েছে গত প্রায় তিন মাসের ধরে। ভারতের সার্বভৌমত্ব ও নিরাপত্তার স্বার্থে ইতিমধ্যেই ১০৬টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। আর চিনের উপর বাড়তি আর্থিক চাপ বাড়াতে, এবছর দেশজুড়ে ‘দেশীয় রাখি’ পালনের ডাক দেয় ব্যবসায়ী সংগঠনটি। দেশে রাখির উৎপাদন বাড়াতেও জোর দেয়। অঙ্গনওয়াড়ি কর্মী ও ব্যবসায়িক সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত মহিলাদের সাহায্যে দেশেই প্রায় ১ কোটি রাখি তৈরি করে কনফেডারেশন অফ অল ইন্ডিয়া ট্রেডার্স। এর পাশাপাশি ঘরে বসেও রাখি তৈরি করেন মহিলারা। বাজার ধরতে বিভিন্ন ধরনের রং ও নকশার রাখি তৈরি করা হয়। রাখির মরসুমে ‘বয়কট চায়না’র বলিয়ান ডাক সেই রণকৌশলেরই অন্যতম অঙ্গ।