সীমান্তের বিবাদ মেটাতে প্রতি সপ্তাহে বৈঠকের ভাবনা ভারত-চিনের

244

নয়াদিল্লি: বেশ কয়েকদিন ধরেই উত্তেজনা রয়েছে গালওয়ান উপত্যকায়। সীমান্তের বিবাদ মেটাতে এখন থেকে সাপ্তাহিক বৈঠকের পথে হাঁটতে চলেছে দু’দেশ।

সূত্রের খবর, সীমান্তের বিবাদ মেটাতে অসামরিক এবং কূটনৈতিক স্তরে আলোচনা চালিয়ে যেতে চায় ভারত ও চিন দুই দেশই। এখন থেকে দুই দেশের মধ্যে আয়োজিত ‘ওয়ার্কিং মেকানিজম ফর কনসালটেশন অ্যান্ড কোঅর্ডিনেশন’ (WMCC) সাপ্তাহিক বৈঠকে নিয়মিত আলোচনা হবে সীমান্ত ইশ্যু নিয়ে। চিনের সঙ্গে এই আলোচনা সীমান্তে উত্তেজনা কমাতে সাহায্য করবে বলে আশাবাদী ভারত।

- Advertisement -

প্রসঙ্গত, সীমান্তে উত্তেজনার শুরুটা হয়েছে গত ১৫ জুন। গালওয়ান উপত্যকার আধিপত্য নিয়ে ভারত-চিন সংঘর্ষে ভারতে ২০ জন সেনাকর্মী শহিদ হয়েছেন। চিনেরও ৪৩ জন সেনার হতাহতের খবর মিলেছে। যদিও চিন এই বিষয়ে কিছু স্বীকার করেনি।

এরপরও ক্রমশ উত্তপ্ত হয়েছে পরিস্থিতি। বিবাদ মেটাতে দু’দেশের মেজর-জেনারেল স্তরে বৈঠকও হয়েছে বেশ কয়েকবার। কিন্তু তাতেও কোনও সুরাহা হয়নি। দু’দেশের বিদেশমন্ত্রী আলোচনায়ও কোনও রফাসূত্র মেলেনি। দু’দেশের মধ্যে শান্তি স্থাপনের জন্য বেশ কয়েকবার উদ্যোগও নেওয়া হয়েছে। এমনকি সেনা প্রত্যাহারের নাটকও করেছে চিনের পিপলস লিবারেশন আর্মি (PLA)। কিন্তু বাস্তবে তাতে কোনও লাভ হয়নি। চিন যখনই সুযোগ পাচ্ছে ভারতীয় ভূখণ্ডে প্রবেশের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

জানা গিয়েছে, গত সপ্তাহেও দু’দেশের বৈঠকে চিন ১৯৫৯ এবং ১৯৬০ সালের সীমান্তের মানচিত্র এনে দাবি করেছে, সেই মানচিত্র অনুযায়ী ভারত ও চিনের সীমান্ত নির্ধারিত হওয়া উচিত। যদিও সেই দাবি খারিজ করেছে ভারত। এখনও পর্যন্ত আলোচনায় কোনও রফাসূত্র না মিললেও আলোচনার মাধ্যমেই সমাধান সম্ভব বলে মনে করছে দু’দেশই।