রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য নির্বাচিত ভারত

ফাইল ছবি

অনলাইন ডেস্ক: অষ্টম বারের জন্য রাষ্ট্রপুঞ্জের নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য নির্বাচিত হল ভারত।

বুধবার এশীয়-প্যাসিফিক গ্রুপের আসনটি বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় জিতে নেয় ভারত। এর আগে ভারত সাতবার নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে নির্বাচিত হয়েছিল। ১৯৫০-’৫১, ১৯৬৭-’৬৮, ১৯৭২-’৭৩, ১৯৭৭-’৭৮, ১৯৮৪-’৮৫, ১৯৯১-’৯২, ২০১১-’১২ মেয়াদে অস্থায়ী সদস্য ছিল ভারত। আর এবার ২০২১-’২২ সালের জন্য অস্থায়ী সদস্য হল ভারত।

- Advertisement -

নিরাপত্তা পরিষদে অস্থায়ী সদস্যদের দু-বছরের জন্য নির্বাচিত করা হয়ে থাকে। এবার ১৯২টি বৈধ ভোটের মধ্যে ১৮৪টি ভোট পেয়ে ভারত অস্থায়ী সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। ভারত ছাড়াও আয়ারল্যান্ড, মেক্সিকো এবং নরওয়েও অস্থায়ী সদস্য নির্বাচিত হয়েছে। তবে কানাডা নির্বাচনে পরাজিত হয়েছে। ২০২১ সালের জানুয়ারি মাস থেকে নতুন সদস্যদের মেয়াদ শুরু হবে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের দেশগুলিকে ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে দু’বছরের অস্থায়ী সদস্যপদ দেওয়া হয়।

বৃহস্পতিবার প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইটে লেখেন, “রাষ্ট্রপুঞ্জের সদস্যপদের জন্য বিশ্বের এই সমর্থনের জন্য আমরা গভীরভাবে কৃতজ্ঞ। সদস্য দেশগুলির সঙ্গে ভারত বিশ্বব্যাপী শান্তি, সমতা, সুরক্ষা ও নিরাপত্তার বিষয়ে কাজ করে যাবে।”

১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য ৫টি দেশ। স্থায়ী সদস্য হল- আমেরিকা, ব্রিটেন, চিন, রাশিয়া ও ফ্রান্স। সেখানে বাকি দশটি আসন রয়েছে অস্থায়ী সদস্য দেশগুলির জন্য। অস্থায়ী সদস্য ১০টি দেশ। এখন ১০টি দেশ নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য, তারা হল- জার্মানি, কুয়েত, বেলজিয়াম, ইন্দোনেশিয়া, পেরু, পোল্যান্ড, ইকোয়েটোরিয়াল গিনি, কোতে দ্য ভঁয়ে, ডমিনিকান রিপাবলিক ও দক্ষিণ আফ্রিকা।

রাষ্ট্রপুঞ্জের ১৯৩ সদস্যের সাধারণ পরিষদে প্রতি বছর নির্বাচন হয় অস্থায়ী সদস্য ঠিক করার জন্য। ভারত ছাড়াও আরও ৯টি দেশ ২০২১ ও ২০২২ সালের জন্য অস্থায়ী সদস্যপদ পাবে।

এদিকে এবার নিয়ে ৮ বারের প্রতিবারই ভারতকে ভোটাভুটির মাধ্য়মে সদস্য হতে হয়েছে। তবে এবারে এই প্রথম ওই সদস্যপদ পেতে ভারতকে এশীয়-প্যাসিফিক গ্রুপে কোনও লড়াই করতে হয়নি। এই গ্রুপের ৫৫টি দেশই ভারতকে সমর্থন করে। চিন ও পাকিস্তানও ভারতকে সমর্থন করে।