জুলাইয়ে ভারতে আসছে ৬টি রাফায়েল যুদ্ধবিমান

573

উত্তরবঙ্গ সংবাদ ডিজিটাল ডেস্ক: পূর্ব লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চিন সীমান্তে উত্তেজনা কমার কোনও লক্ষণ নেই। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর উত্তেজনা প্রতিদিনই বাড়ছে। এই পরস্থিতিতে জুলাইয়ের শেষদিকে ভারতের হাতে আসছে ৬টি রাফায়েল যুদ্ধ বিমান।

প্রথমে ঠিক ছিল, এবছরের মে মাসে ৪টি রাফায়েল ভারতের আকাশে উড়বে। কিন্তু করোনা সংক্রমণের কারনে তা পিছিয়ে যায়। তবে এবার ৪টি’র পরিবর্তে ৬টি  যুদ্ধবিমান জুলাইয়ের শেষ দিকে ভারতের হাতে আসবে। বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গিয়েছে, আগামী ২৭ জুলাই ভারতে পৌঁছবে ওই ৬টি রাফায়েল যুদ্ধবিমান। সেগুলি থাকবে হরিয়ানার আম্বালা এয়ারবেসে। যদিও এব্যাপারে সরকারিভাবে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

- Advertisement -

ভারত ৫৯ হাজার কোটি টাকা দিয়ে ফ্রান্সের কাছ থেকে ৩৬টি রাফায়েল যুদ্ধবিমান কিনছে। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে এবিষয়ে ফ্রান্সের সঙ্গে ভারতের চুক্তি হয়। দুটি স্কোয়াড্রনে ভাগ করে যুদ্ধবিমানগুলিকে দেশের দুই প্রান্তে রাখা হবে। প্রথম স্কোয়াড্রন আম্বালায় থাকবে। আর দ্বিতীয় স্কোয়াড্রন থাকবে পশ্চিমবঙ্গের হাসিমারাতে। একদিকে পাকিস্তান আর অন্যদিকে, চিনের আক্রমণ প্রতিহত করাই এর উদ্দেশ্য। ভারতীয় বায়ুসেনা মনে করছে, ২০২২ সালের মধ্যেই ৩৬টি রাফায়েল ভারতের হাতে চলে আসবে।

উল্লখ্য, লাদাখে ভারত-চীন সীমান্তে গত দুমাস ধরে উত্তেজনা চলছে। ১৫ জুন রাতে পূর্ব লাদাখে চীনা সেনার সঙ্গে সংঘর্ষে কুড়ি জন ভারতীয় জওয়ান শহীদ হয়েছেন। পাশাপাশি ৪৩ জন চীনা সেনার হতাহতের খবর পাওয়া গিয়েছে। যদিও চীন এখনও তা স্বীকার করেনি। তবে একজন চীনা কমান্ডিং অফিসার মৃত্যু হয়েছে বলে মেনে নিয়েছে চীন। সম্প্রতি উপগ্রহ চিত্রে দেখা গিয়েছে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর বেশকিছু ঘাঁটি তৈরি করেছে চীন।

সেকারণে ভারতের তরফে লাইন অফ অ্য়াকচুয়াল কন্ট্রোল বরাবর নজরদারির জন্য চিনুক কার্গো হেলিকপ্টার, অ্যাপাচে অ্যাটাক হেলিকপ্টার, মিরাজ ২০০০, মিগ ২৯ এর নতুন ভার্সন, পি ৮১  এয়ারক্রাফট নামানো হয়েছে। অন্যদিকে, লাদাখের কাছাকাছি এলাকায় চীনের জে-১১, জে-১৬, জে-৭ যুদ্ধবিমান উড়ছে। তবে বসে নেই ভারতও। লাদাখে টহল দিচ্ছে ভারতের সুখোই-৩০ এমকেআই যুদ্ধবিমান। এমন পরিস্থিতিতে জুলাই মাস নাগাদ ভারতের হাতে রাফায়েল চলে এলে ভারতীয় বায়ুসেনা আরও শক্তিশালী হবে বলে বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন।