অপরাজিত অজিদের রথ থামাল ভারত

ম্যাকে : স্টিভ ওয়ার বিশ্বজয়ী দল থেকে শুরু করে গাব্বায় তিন দশক ম্যাচ না হারার রেকর্ড। অস্ট্রেলিয়ার ইতিহাসের ইতি হয়েছে ভারতের হাতেই। রবিবার অজি মহিলা দলের টানা ওডিআই জয়ের ধারাতেও বাঁধ দিল ভারতই। প্রায় তিন বছরে টানা ২৬ ম্যাচ জয়ের পর থামলেন মেগ ল্যানিংরা। একমাত্র টেস্টের আগে এই জয় আত্মবিশ্বাস যোগাবে ভারতকে।

রেকর্ডটা অবশ্য আগের ম্যাচেই থামানোর সুযোগ পেয়েছিল ভারত। তবে বিতর্কিত নো বলে তা হাতছাড়া হয়। এদিন অবশ্য তিন বল হাতে রেখেই ম্যাচ জিতলেন স্মৃতি মন্ধানারা (২২)। প্রথমে ব্যাট করে ২৬৪/৯ স্কোর করে অস্ট্রেলিয়া। প্রাথমিক ধাক্কা সামলে দলকে ভদ্রস্থ জায়গায় পৌঁছে দেন বেথ মুনি (৫২), অ্যাশলে গার্ডেনার (৬৭), তাহিলা ম্যাকগ্রাথরা (৪৭)। বাকি দুম্যাচের মতো এদিনও বল হাতে উজ্জ্বল ঝুলন গোস্বামী (৩৭ রানে ৩ উইকেট)। নজর কাড়লেন পূজা বস্ত্রকারও (৪৬/৩)।

- Advertisement -

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করে স্মৃতি ও শাফালি ভার্মার (৫৬) জুটি। পরবর্তীতে শাফালি ও ইয়াস্তিকা ভাটিয়া (৬৪) দ্বিতীয় উইকেটে ১০১ রান যোগ করে ভারতকে শক্ত ভিতের ওপর দাঁড় করিয়ে দেন। তবে রিচা ঘোষ (০) এদিন রান পাননি। বাকি কাজটা করলেন দীপ্তি শর্মা (৩১) ও স্নেহ রানা (৩০)। ৮ উইকেট হারিয়ে ২৬৬ রান তুলে ম্যাচ জেতার পাশাপাশি হোয়াটই ওয়াশের লজ্জাও এড়ালেন ঝুলনরা (৮ অপরাজিত)।

এদিন অবশ্য অস্ট্রেলিয়াকে সহজে হারাতে পারত ভারত। তবে ফিল্ডিংয়ের ব্যর্থতার জন্য অজিদের আরও আগে থামাতে ব্যর্থ হন মিতালি রাজরা। অন্তত চারটি সহজ ক্যাচ হাতছাড়া হয়, মিসফিল্ডের মাসুল অন্তত ১৫ রান। তবে দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি রান তাড়া করে জিতলেন ঝুলন, রিচারা। এর আগে রান তাড়া করে জেতার ক্ষেত্রে ভারতের সর্বোচ্চ স্কোর ২৪৮/৫ (অক্টোবর ২০১৯, বনাম দক্ষিণ আফ্রিকা।