নয়াদিল্লি, ৬ জানুয়ারিঃ এয়ারপোর্টের মতো স্টেশনেও চালু হতে চলেছে বোর্ডিং টাইম। এমনই পরিকল্পনা করছে রেলমন্ত্রক। ট্রেন ছাড়ার ১৫-২০ মিনিট আগে পৌঁছাতে হবে স্টেশনে। সিকিউরিটি চেকিংয়ের জন্যই নির্ধারিত সময়ের আগে স্টেশনে পৌঁছানোর কথা বলা হচ্ছে। রেলের নিরাপত্তা বাহিনীর ডিরেক্টর জেনেরাল অরুণ কুমার বলেন, ‘প্রয়াগের কুম্ভমেলা উপলক্ষ্যে এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত করা হচ্ছে। এছাড়া এই পরিকল্পনা চালু করা হচ্ছে কর্ণাটকের হুবলি স্টেশনেও। পাশাপাশি এই পরিকল্পনা বাস্তবায়নের জন্য আরও ২০২ টি স্টেশনকে চিহ্নিত করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘পরিকল্পনা অনুযায়ী, স্টেশনগুলিকে সিল করে দেওয়া হবে। পাঁচিল দিয়ে ঘিরে দেওয়া হবে স্টেশন। পাশাপাশি, আরপিএফ ও কলাপসিবল গেটেরও ব্যবস্থা করা হবে। প্রত্যেকটা গেটে থাকবে জোরদার নিরাপত্তার ব্যবস্থা। নিরাপত্তার জন্য ট্রেন ছাড়ার ১৫-২০ মিনিট আগে প্রবেশ পথ সিল করে দেওয়া হবে।’ গোটা পরিকল্পনাটি ইন্টিগ্রেটেড সিকিউরিটি সিস্টেমের মাধ্যমে বাস্তবায়িত করা হবে। সিসিটিভি ক্যামেরা, ব্যাগেজ স্ক্রিনিং সিস্টেম, বম ডিটেকশন, ডিসপ্লে সিস্টেম ব্যবস্থা থাকবে। গোটা প্রজেক্টের জন্য বরাদ্দ হয়েছে ৩৮৫.০৬ কোটি টাকা।