নয়াদিল্লি, ১ নভেম্বরঃ আজ থেকে দূরপাল্লার ৫০০টি ট্রেনের সময়মূচীতে বদল আনছে ভারতীয় রেল। সোমবার ভারতীয় রেলের পক্ষ থেকে এক বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছিল, ১ নভেম্বর থেকে কার্যকর হবে রেলের নতুন টাইম টেবিল।

এর ফলে গতিবেগ বেড়ে যাবে দূরপাল্লার ট্রেনগুলির। এর ফলে ২ ঘন্টা করে সময় কমবে। তবে গতিবেগ বাড়লে দুর্ঘটনার সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যাবে বলে মনে করছে একাংশ। কারণ পরিকাঠামো তৈরি না করে কেন ট্রেনগুলির গতি বাড়ানো হচ্ছে তা নিয়ে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।
এছাড়া আজ থেকে তেজস, হামসফর এবং অন্ত্যোদয়া প্রকল্পের আওতায় মোট ছটি নতুন ট্রেন চালু হল। এছাড়া বাড়ানো হল ৬৫টি ট্রেনের গতি।

উল্লেখ্য, মেল-এক্সপ্রেস-প্যাসেঞ্জার মিলিয়ে প্রায় ৫০০টি ট্রেনের যাত্রার সময় ৫ মিনিট থেকে ২ ঘণ্টা ২০ মিনিট পর্যন্ত কমানো হল বলে রেলসূত্রে খবর।

এই নতুন ট্রেনগুলি ছাড়াও যেসমস্ত ট্রেন সপ্তাহে একদিন বা দুদিন ছাড়ত, সেগুলোর ছাড়ার দিনের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। তারমধ্যে রয়েছে ১২৫৯৫/১২৫৯৬ এবং ১২৫৭১/১২৫৭২ গোরক্ষপুর-আনন্দবিহার হামসফর এক্সপ্রেস। এখন থেকে এই নম্বরের ট্রেনগুলি সপ্তাহে তিন এবং চারদিন ছাড়বে। উত্তর রেলের ৬৫টি ট্রেনের গতি বাড়ানো হয়েছে। দক্ষিণ রেলের ৫১টি এক্সপ্রেস এবং ৩৬টি প্যাসেঞ্জার ট্রেনের গতি বাড়ানো হয়েছে। পূর্বের ৩৭টি এক্সপ্রেস এবং ১৯টি লোকাল ট্রেনের গতি বাড়ানো হয়েছে।

এছাড়া স্টেশনে ট্রেনের হল্টের সময়ও কমানো হচ্ছে বলে জানিয়েছে রেলমন্ত্রক। তার জন্য ৫০ হাজার কোটি টাকা খরচ করা হবে যাত্রী সুরক্ষায়।
এবারের বাজেটে বলা হয়েছিল রেলের বিশেষ সুরক্ষার জন্য ১.৩১ কোটি টাকা খরচ করা হবে। এবার তার সঙ্গে আরও ৫০ হাজার কোটি টাকা বাড়ানো হচ্ছে বলে জানানো হয়েছে।

তবে গত সপ্তাহে এক নির্দেশে বলা হয়েছে রেল মন্ত্রক এই নতুন ট্রেন চালু হওয়া প্রসঙ্গে কোনওরকম প্রচার করতে পারবে না। তাই নতুন টাইম টেবিল চালু হওয়া প্রসঙ্গে প্রচার থাকলেও, নয়া ট্রেন চালু প্রসঙ্গে নীরবতা বজায় রেখেছে রেলমন্ত্রক।