ওয়াশিংটন, ২ এপ্রিলঃ ভারতের এস্যাট ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা নিয়ে এবার গুরুতর আশঙ্কা প্রকাশ করল নাসা (মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা)। নাসা-র চিফ জিম ব্রাইডেনস্টাইন বলেন, ‘এটা ভয়ংকর ঘটনা। আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশন (আইএসএস)-র ঠিক উপরে এমন কিছু ঘটানো অত্যন্ত ঝুঁকির কাজ।’

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থার কর্মীদের উদ্দেশে ভাষণে ভারতের ‘মিশন শক্তি’ প্রসঙ্গ টেনে আনেন ব্রাইডেনস্টাইন। জানান, এস্যাট ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ফলে পৃথিবীর ৩০০ কিলোমিটার বা ১৮০ মাইলের কক্ষপথে অন্তত ৪০০টি ধ্বংসাবশেষ সৃষ্টি হয়েছে। যাদের গতিবেগ ওই উপগ্রহের সমান। এবং সেগুলি তীব্র গতিতে উপরের দিকে অর্থাৎ পৃথিবীর উপরের কক্ষপথের দিকে এগোচ্ছে। যেখানে রয়েছে আইএসএস। তাই উপরের দিকে উঠতে থাকা, ধ্বংসাবশেষের সঙ্গে আইএসএস-র ধাক্কার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি।

এর ফলেই ভারতীয় পরীক্ষার কারণে আইএসএস-র ক্ষতির আশঙ্কা ১০ দিনে ৪৪ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। তবে পরবর্তীতে তা ধীরে ধীরে কমে যাবে বলেই জানিয়েছেন ব্রাইডেনস্টাইন। এই ধরনের পরীক্ষার কারণে ভবিষ্যতের মহাকাশ গবেষণায় বাধা তৈরি হতে পারে বলেও আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি।

২০০৭ সালে একই অ্যান্টি স্যাটেলাইট মিসাইল পরীক্ষা করেছিল চিন। যার জেরে মহাশূন্যে ৩ হাজার ধ্বংসাবশেষ সৃষ্টি হয়েছিল।