খাস জমি উদ্ধারে বিক্ষোভে শামিল আদিবাসীরা

193

হরিশ্চন্দ্রপুর: হরিশ্চন্দ্রপুরের খাস জমি উদ্ধার করতে তীর ধনুক হাতে সশস্ত্র বিক্ষোভ আদিবাসীদের। আদিবাসী সম্প্রদায়ের দাবি, ওই খাস জমির সরকারি কাজে ব্যবহার করা হোক এবং এলাকার বাসিন্দাদের জন্য খেলার মাঠের ব্যবস্থা করা হোক। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে জমি হাঙরদের কবলে পড়ে খাসজমি দখল হয়ে যাচ্ছে অবৈধভাবে। ভূমি সংস্কার দপ্তর থেকে বিভিন্ন প্রশাসনিক মহলে অভিযোগ জানিয়েও কোনও কাজ হয়নি বলে এলাকার আদিবাসী বাসিন্দাদের অভিযোগ। বৃহস্পতিবার বাধ্য হয়ে খাস জমিতে অবৈধ নির্মাণ বন্ধ করতে তীর ধনুক হাতেই কয়েকশ আদিবাসী ওই মাঠে নেমে পড়ে। ভেঙে দেওয়া হয় সমস্ত অবৈধ নির্মাণ। কেটে ফেলা হয় অবৈধভাবে লাগানো গাছ।

হরিশ্চন্দ্রপুর থানার আইসি সঞ্জয় কুমার দাসের নেতৃত্বে বিশাল পুলিশবাহিনী ওই এলাকায় যায়। সশস্ত্র আদিবাসীদের সঙ্গে আলোচনায় বসেন পুলিশ আধিকারিকরা। তিন ঘণ্টা ধরে মাঠের মধ্যেই চলে আলোচনা। কিন্তু আদিবাসীরা প্রশাসনের কোনও কথা শুনতে নারাজ। তাঁরা আন্দোলন চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়ে দেন পুলিশ আধিকারিকদের। এদিকে আদিবাসী বিক্ষোভের জেরে হরিশ্চন্দ্রপুর স্টেশন গ্রামের রাস্তার যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায় কয়েক ঘণ্টার জন্য। পরিস্থিতি সামাল দিতে আরও পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করা হয় এলাকায়।

- Advertisement -

জানা গিয়েছে, হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকার গড়গড়ি মাঠ দীর্ঘদিন ধরে ভেস্ট হয়ে গিয়েছে। সরকারি খতিয়ান অনুযায়ী জমিটি বর্তমানে খাস জমি। বর্তমানে এলাকার কিছু সমাজবিরোধী ও জমি মাফিয়াদের কবলে পড়ে এই খাস জমি বিক্রি হয়ে যাচ্ছে। যারা কিনছেন তারা হয় জমির কিছু অংশ ঘিরে দিচ্ছেন অথবা গাছ লাগিয়ে দিচ্ছেন। ওই মাঠের আশেপাশে সমস্ত এলাকাই আদিবাসী সম্প্রদায়ের গ্রাম। খবর লেখা পর্যন্ত এখনও অবস্থান চালিয়ে যাচ্ছেন এলাকার আদিবাসীরা। আদিবাসী বিক্ষোভের জেরে হরিশ্চন্দ্রপুর থানা এলাকা জুড়ে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।