ইংল্যান্ড ভুলে আইপিএলে নজর কোহলির

পুনে : ইংল্যান্ডের দখল নেওয়ার কাজ সম্পূর্ণ। মিশন আইপিএল ভাবনা শুরু!

বিরাম নেই। বিশ্রাম নেই। লাগাতার ক্রিকেট। জৈব সুরক্ষা বলয়ে কঠিন বিধি মেনে থাকা। পরিস্থিতির দাবি মেনে সময়ে স্রোতে গা ভাসানো। কিন্তু এভাবে আর কতদিন?

- Advertisement -

দুবাইয়ে ত্রয়োদশ আইপিএল, অস্ট্রেলিয়ায় দীর্ঘ সিরিজ, দেশে ফিরেই মিশন ইংল্যান্ড। গতকাল ইংল্যান্ড সিরিজ শেষ হওয়ার পরই ফের আইপিএল গ্রহে ঢুকে পড়া। আগামী ১ এপ্রিল চেন্নাইয়ে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালোরের শিবিরে যোগ দিচ্ছেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি। তার আগে জৈব সুরক্ষা বলয়ে কাঠিন্য নিয়ে ক্রিকেটমহলকে সতর্ক করে বিরাট বলেন, সবে একটা সিরিজ শেষ হল। কয়েক দিনের মধ্যেই আইপিএলের বলয়ে ঢুকে পড়তে হবে। আইপিএল শেষে ইংল্যান্ড যেতে হবে। সেখানেও বায়ো বাবলে থাকা বাধ্যতামূলক। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়ানশিপের পরই রয়েছে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ। এভাবে দীর্ঘসময় বাবলে থাকা কষ্টকর। সবার মানসিক অবস্থা সমান হয় না। অথচ মানিয়ে নেওয়া ছাড়া উপায়ও নেই। আশা করব, ভবিষ্যতে ছবিটা বদলাবে।

বারবার পিছিয়ে পড়ে ঘুরে দাঁড়ানো। পরিস্থিতির চ্যালেঞ্জ নিয়ে সেরা ক্রিকেট উপহার দিয়ে সিরিজ জিতে নেওয়া। করোনার দুনিয়ায় বিরাট কোহলির ভারত বারবার নিজেদের আলাদাভাবে প্রমাণ করে চলেছে। এভাবেই গতরাতে পুনের এমসিএ স্টেডিয়ামে বাটলার-স্টোকসদের বিরুদ্ধে ৭ রানে রুদ্ধশ্বাস জয় এসেছে। স্যাম কুরান যেভাবে কোহলিদের ম্যাচ ও সিরিজ জয়ের পথে কাঁটা বিছিয়ে দিয়েছিলেন, তারপর ম্যাচের যে কোনও ফলই হতে পারত।

ভুবনেশ্বর কুমার, শার্দূল ঠাকুরদের দাপট ও স্কিলে শেষ পর্যন্ত জয় নিশ্চিত হয়েছে ভারতের। অথচ ভুবি বা শার্দূলদের ভাগ্য ম্যাচ বা সিরিজ সেরার সম্মান জোটেনি। সিরিজ জয়ের রাতে এমন ঘটনায় বিস্মিত কোহলি বলেন, শার্দূল ম্যাচের সেরা হল না, ভুবি সিরিজের সেরা হল না। এমন সিদ্ধান্তে আমি অবাক। সিরিজে বারবার পরিস্থিতি বদলে দিয়েছে ওরাই। অথচ ওরা তার স্বীকৃতি পেল না। সিরিজের সেরা হয়েছেন ইংল্যান্ডের জনি বেয়ারস্টো, ম্যাচের সেরা কুরান।