মাতৃভূমিতে ফিরল আইএস মহিলা-শিশুরা

263

বার্লিন: সিরিয়ার যুদ্ধক্ষেত্র থেকে ৫ আইএস মহিলা ও ১৮ জন শিশুকে উদ্ধার করে ঘরে ফেরানো হয়েছে। জার্মান সরকারের উদ্যোগে তাদের ঘরে ফেরানো হয়েছে। অত্যন্ত গোপনীয়তার সঙ্গে তাঁদের ফিরিয়ে আনা হয়েছে বলে জার্মান পররাষ্ট্রমন্ত্রী হাইকো মাস জানিয়েছেন। প্রত্যেকটি মহিলার ওপরই চরমপন্থা ও জঙ্গি কার্যকলাপের অভিযোগ রয়েছে। তবে, জঙ্গি সংযোগের কথা খোলসা করেনি জার্মান সরকার।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম সূত্রে খবর, জার্মানের বহু বাসিন্দা গত কয়েক বছরে সিরিয়ায় গিয়েছে আইএস শিবিরে যোগ দিয়েছে। তাঁদের মধ্যে এই পাঁচ মহিলাও সিরিয়ায় গিয়ে আইএস জঙ্গিদের বিয়ে করার পাশাপাশি জঙ্গি কার্যকলাপে অংশ নিয়েছিলেন বলে জানা গিয়েছে। তবে, সরকারের তরফে পাঁচ মহিলার নামের প্রথম অংশ ছাড়া কারোর সম্পূর্ণ পরিচয় জানানো হয়নি। তাঁরা সিরিয়ায় আইএস শিবিরে যোগ দিলেও পরবর্তী সময় প্রত্যেকেই ছিলেন উত্তর পূর্ব সিরিয়ায় কুর্দদের তৈরি করা ক্যাম্পে। দশ হাজারেরও বেশি আইএস মহিলা এবং শিশুদের আটকে রাখা ছিল ওই ক্যাম্পগুলিতে। সেখান থেকে উদ্ধার করা ওই ১৮টি শিশুরও মাতৃভূমি সিরিয়ায়। কুর্দ যোদ্ধাদের সঙ্গে যোগাযোগ করে তাঁদের ফেরানোর ব্যবস্থা করে জার্মান সরকার।

- Advertisement -

আইএস শিবিরে যোগ দেওয়া জার্মান মহিলাদের দেশে ফিরিয়ে আনার বিষয়ে আগ্রহী ছিলেন না চ্যান্সেলর আঙ্গেলা ম্যার্কেল ও জার্মান সরকার। তবে, বিভিন্ন অধিকাররক্ষা সংগঠনের চাপে শেষ পর্যন্ত ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু করতে বাধ্য হয় জার্মান সরকার। কুর্দ যোদ্ধাদের সঙ্গে আলোচনা পর্ব চালিয়ে এবং ফিনল্যান্ডের সঙ্গে যৌথভাবে কাজ করে চার্টার বিমানের মাধ্যমে মহিলা ও শিশুদের ফেরানোর ব্যবস্থা করা হয়েছিল।

জার্মান সরকার সূত্রে খবর, যে শিশুদের উদ্ধার করা হয়েছে, তাদের বেশিরভাগই অনাথ। বেশ কয়েকজন অসুস্থও রয়েছে। ইতিমধ্যেই তাঁদের চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে, আগামিদিনে আরও মহিলা ও শিশুকে ফেরানো হবে কিনা সে বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেনি জার্মান সরকার।