শ্রীনগর, ১৯ ফেব্রুয়ারিঃ কাশ্মীরে জঙ্গি হানার ১০০ ঘণ্টার চেয়ে কম সময়ে জঙ্গি সংগঠন জৈশ-ই-মহম্মদের নেতৃত্বকে শেষ করা সম্ভব হয়েছে বলে জানাল সেনা। মাত্র একদিন আগে কাশ্মীরে বড় অভিযান চালায় নিরাপত্তা বাহিনী। তাতে প্রাণ যায় জইশ-ই-মহম্মদের জঙ্গিদের। সেনা কর্তা কনওয়াল সিং ধিলন জানিয়েছেন, তারা জইশ জঙ্গিদের ওপর নজরদারি করছিলেন। তার ফলেই পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত এই জঙ্গি সংগঠনের মাথাদের নিকেশ করা সম্ভব হয়েছে। তার জন্য সময় লেগেছে ১০০ ঘণ্টা।

পাশাপাশি সেনার এই আধিকারিক জানান, যে সমস্ত ছেলেরা হাতে বন্দুক তুলে নিয়েছে তাদের পরিবারের উচিত প্রশাসনকে সাহায্য করা। ছেলেদের আত্মসমর্পণ করতে বলা উচিত তাদের মায়েদের। তা না হলে প্রাণ যাবে ছেলেদের। গতকালের অপারেশনে শহিদ হয়েছেন মেজর বিভুতি শঙ্কর ধনদিয়াল(৩৪), সেপাই হরি সিং(২৭), হাবলদার সেও রাম(৩৭) এবং সেপাই অজয় কুমার(২৭)। পরে প্রধান কনস্টেবল আব্দুল রশিদ কলস তার জখমের জন্য মারা যান।

এই অভিযানে প্রাণ গিয়েছে জইশের তিন জঙ্গির। তার মধ্যে ছিল কামরানও। সে পুলওয়ামার জঙ্গি হামলার অন্যতম মূচক্রী। তাছাড়া ভারতের মাটিতে ঘটে যাওয়া একাধিক জঙ্গি হামলার মাথা মাসুদ আজাহারের ডানহাত ছিল সে।