বিশ্বের দ্বিতীয় দ্রুততমা জামাইকার শেলি

কিংস্টোন : বয়স ৩৪। তাতেও থামতে নারাজ জামাইকান তারকা শেলি-অ্যান ফ্রেজার প্রাইস। বরং ১০.৬৩ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়ে নিজেকে বিশ্বের দ্রুততমা মহিলাদের তালিকায় দ্বিতীয়স্থানে তুলে আনলেন। অবশ্য ফ্লোরেন্স গ্রিফিথ জয়নারের রেকর্ড (১০.৪৯ সেকেন্ড) থেকে অনেকটাই দূরে থামলেন।

এমনিতে বিশ্ব অ্যাথলেটিক্সে শেলি নতুন মুখ নন। অলিম্পিক ও বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ মিলিয়ে ১০০ মিটার দৌড়ে ৬টি সোনা আছে তাঁর দখলে। বর্তমানে তিনিই বিশ্বের দ্রুততমা (১০.৭০ সেকেন্ড)। শনিবার দেশের মাটিতে অলিম্পিকের এক প্রস্তুতি ইভেন্টে নিজের সেই রেকর্ডও ভাঙলেন। গত মার্চে মার্কিন শাকারি রিচার্ডসনের করা ১০.৭২ সেকেন্ডের রেকর্ড ভেঙে এই বছরের দ্রততম মহিলাও হলেন। ইভেন্টের শেষে শেলি বলেন, সত্যি বলতে এতটা জোরে দৌড়ানোর কথা ভাবিনি। আমার উপর কোনও চাপ ছিল না। জাতীয় ট্রায়ালের আগে ভালোভাবে দৌড়ানোই লক্ষ্য ছিল।

- Advertisement -

এতদিন জামাইকার দ্রুততম মহিলার তালিকায় এলাইনি থম্পসন-হেরার সঙ্গে একই পর্যায়ে ছিলেন। এবার তাঁকেও পেছোনে ফেলে অলিম্পিক নিয়ে পরিকল্পনা শুরু করে দিয়েছেন শেলি। তাঁর কথায়, আমি এবছর ১০.৭০ সেকেন্ডের থেকে কম সময়ে দৌড়তে চেয়েছিলাম। সেক্ষেত্রে আমি অলিম্পিকের দিকে মন দিতে পারব। আশা করছি, ট্রায়ালে ভালো করে জাতীয় দলে জায়গা করে নেব। এবার আমার লক্ষ্য সময় কমিয়ে ১০.৬০ সেকেন্ড করা। এদিন মারিয়ন জোন্স (১০.৬৫ সেকেন্ড) ও কার্মালিটা জেটারের (১০.৬৪ সেকেন্ড) মতো প্রাক্তন তারকাদেরও পেছনে ফেললেন শেলি।

অন্যদিকে, শনিবার ফ্লোরিডায় একটি অলিম্পিক চ্যালেঞ্জ ইভেন্টে ৯.৭৭ সেকেন্ডে ১০০ মিটার দৌড়েছেন মার্কিন স্প্রিন্টার ট্রেভন ব্রোমেল। বিশ্বের দ্রুততমের তালিকায় সপ্তম স্থানে উঠে এসেছেন তিনি। বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন ক্রিশ্চিয়ান কোলম্যানের অনুপস্থিতিতে টোকিও গেমসে সোনা জয়ে ক্ষেত্রে ২৫ বছরের ব্রোমেল অন্যতম ফেভারিট।