আই লিগের হয়ে সওয়াল জামাল ভুঁইয়ার

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : বিদায়বেলায় আবেগাপ্লুত জামাল ভুঁইয়া।

জাতীয় দলে যোগ দিতে বৃহস্পতিবার রওনা দিচ্ছেন বাংলাদেশের অধিনায়ক। ফলে আই লিগে বাকি দুই ম্যাচে তাঁকে আর পাচ্ছে না মহমেডান স্পোর্টিং। এদিন ক্লাব তাঁবুতে জামালকে বিদাযি সংবর্ধনা দেন সাদা-কালো কর্তারা। উপস্থিত ছিলেন ক্লাবের সহ সভাপতি মহম্মদ কামারুদ্দিন সহ অন্যান্য কর্তারা। তাঁদের হাতে নিজের বাংলাদেশ জাতীয় দলের জার্সি তুলে দেন জামাল।

- Advertisement -

আই লিগ জয়ে লক্ষ্যে মরশুমের শুরুতে জামালকে দলে নিয়েছিল মহমেডান। তবে সেই প্রত্যাশা পূরণ হয়নি। বিদায়লগ্নে সেই আক্ষেপ ঝরে পড়ল জামালের গলাতেও। বললেন, মহমেডান ক্লাবে যেদিন প্রথম পা রেখেছিলাম অনেক ট্রফি চোখে পড়েছিল। আমার স্বপ্ন ছিল আই লিগটাও এই ট্রফি ক্যাবিনেটে নিয়ে আসার। সেটা না হওয়ায় খারাপ তো লাগছেই। তবে সতীর্থদের বলেছি, বাকি দুই ম্যাচ জিতে শেষ করো। সেটাই সমর্থকদের জন্য বড় উপহার হবে।

মরশুমের শুরু থেকেই কোচ বিতর্কে সরগরম ছিল সাদা-কালো শিবির। তাঁর প্রভাব পড়েছে দলের পারফরমেন্সে। জামাল অবশ্য সেই বিতর্কে ঢুকতে চাইলেন না। তবে জানালেন, আই লিগের প্রথম পর্যায়ে ইন্ডিয়ান অ্যারোজের কাছে হার বড় ধাক্কা ছিল। নয়তো চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে থাকত মহমেডান। পাশাপাশি ঘুরে দাঁড়ানোর পিছনে বর্তমান কোচ শংকরলাল চক্রবর্তীর বড় ভূমিকা দেখছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক।

কলকাতায় সমর্থকদের উন্মাদনা মন ছুঁয়েছে জামালের। আই লিগ খেলার অভিজ্ঞতা সূত্রে নির্দ্বিধায় বললেন, আইএসএল, আই লিগের মধ্যে মানের বিশেষ তফাত নেই। তবে এখানে আই লিগের থেকে আইএসএলকে বেশি প্রাধান্য দেওয়া হয়। আই লিগকে গুরুত্ব দিলে এখান থেকে আরও ভালো ফুটবলার উঠে আসবে। ভবিষ্যতে ফের কলকাতায় ফেরার ইঙ্গিতও দিয়ে রাখলেন তিনি।

তবে তাঁকে নিয়ে মোহভঙ্গ হয়েছে মহমেডান কর্তা থেকে সমর্থকদের। সাড়ম্বরে জামালকে আনা হলেও সাদা-কালো জার্সিতে নিজেকে মেলে ধরতে ব্যর্থ বাংলাদেশ-ফুটবলের পোস্টারবয়। তাই বিদায়বেলায় মহমেডান নিয়ে যতই আবেগাপ্লুত হোন জামাল, মুখ ফিরিয়ে থাকলেন সমর্থকরা।