জঙ্গলমহল আধা সেনা প্রত্যাহারের নির্দেশ

564

নয়াদিল্লি: কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শা-র রাজ্য সফরের মধ্যে জঙ্গলমহল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী প্রত্যাহার করার বিশেষ নির্দেশ দেওয়া হল। ২০ নভেম্বরের মধ্যে সিআরপিএফের দুটি ব্যাটেলিয়নকে জঙ্গলমহল ছাড়তে বলা হয়েছে। বিধানসভা নির্বাচনের আগে এই নির্দেশিকায় উদ্বেগ বাড়ল রাজ্যের।

পুরুলিয়া ও ঝাড়গ্রাম মিলিয়ে জঙ্গলমহলের বিভিন্ন শিবিরে তথা স্পর্শকাতর অঞ্চলে মাওবাদী মোকাবিলায় মোতায়েন রয়েছে ৫০ ও ১৬৫ নম্বর ব্যাটেলিয়নের প্রায় ১৪ কোম্পানি। এর মধ্যে ৮ কোম্পানিকে ইতিমধ্যে বিহারে বিধানসভা ভোটের জন্য পাঠানো হয়েছে। বাকি ৬ কোম্পানিকে ছত্তিশগড় এবং মধ্যপ্রদেশে পাঠানো হবে বলে ঠিক হয়েছে। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রকের নির্দেশ পাওয়ার সিআরপিএফের ওই কোম্পানিগুলির জন্য স্পেশাল ট্রেনের ব্যবস্থা করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রেলকে। শুধু বাংলা নয়, ঝাড়খণ্ড, বিহার থেকে সিআরপিএফকে ছত্তিশগড়ে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত হয়েছে। সাম্প্রতিককালে বাংলায় বড় ধরনের মাওবাদী নাশকতা না হলেও এবছর স্বাধীনতা দিবসে বেলপাহাড়ির ভুলাভেদা অঞ্চলে মাওবাদীদের নামাঙ্কিত কিছু পোস্টার পাওয়ার পর নতুন করে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে। সংসদের বাদল অধিবেশনে ঝাড়গ্রামের বিজেপি সাংসদ কুনার হেমব্রম এই সমস্যা উল্লেখ করে ওই অঞ্চল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী না সরানোর আর্জি জানিয়েছিলেন। হেমব্রমের প্রস্তাবকে সমর্থন করেন পুরুলিয়ার বিজেপি সাংসদ জ্যোতির্ময় মাহাতো। কিন্তু শেষমেশ জঙ্গলমহল থেকে কেন্দ্রীয় বাহিনী ফিরিয়ে নেওয়ার পথেই হাঁটল অমিত শার মন্ত্রক।

- Advertisement -