পুজোয় পর্যটক টানতে জেডিএর ভরসা গেরিগাঁও

162

অনন্যা দে চট্টোপাধ্যায়, জয়গাঁ : দুর্গাপুজোর আগে পর্যটনকে গুরুত্ব দিয়ে দুধের স্বাদ ঘোলে মেটানোর ব্যবস্থা করছে জয়গাঁ ডেভেলপমেন্ট অথরিটি (জেডিএ)। জয়গাঁ পর্যটনের নতুন ডেস্টিনেশন গেরিগাঁওকে ঢেলে সাজানোর কাজে ব্যস্ত জেডিএ। জয়গাঁ শহর থেকে কয়েক পা এগোলেই কিছুটা উঁচুতে থাকা ভুটান পাহাড় লাগোয়া ছোট্ট গ্রাম গেরিগাঁও। এখানকার ভিউ পয়েন্ট থেকে পুরো জয়গাঁ শহরটিকে দেখা যায়। সবুজ পাহাড়ের গা বেয়ে ফুরফুরে শীতল হাওয়া, নীল আকাশ ছোঁয়ার হাতছানি পর্যটকদের কাছে বেশ আকর্ষণীয়। ছবির মতো এই পাহাড়ি গ্রামটিকে কেন্দ্র করে জয়গাঁয় পর্যটন প্রসারে উদ্যোগী হয়েছে জেডিএ।

বোর্ডের চেয়ারম্যান গঙ্গাপ্রসাদ শর্মা জানান, সেখানে সরকারি উদ্যোগে গেস্টহাউস তৈরি করা হচ্ছে। এতে জয়গাঁয় পর্যটনের উন্নতি হবে বলে আশা তাঁর। তিনি বলেন, কটেজ নির্মাণের কাজ শেষ। কিছু সৌন্দর্যায়নের কাজ বাকি রয়েছে। পুজোর আগেই গেস্টহাউসটি উদ্বোধন করা হবে।

- Advertisement -

জেডিএ সূত্রে জানা গিয়েছে, প্রায় ১ কোটি  ১১ লক্ষ টাকা খরচে গেরিগাঁওয়ে পাঁচটি কটেজ তৈরি করা হয়েছে। একটি ডর্মেটরি রয়েছে। পর্যটকদের সুবিধার্থে কটেজগুলিতে সব রকমের ব্যবস্থা রাখা হয়েছে। জেডিএর এগজিকিউটিভ অফিসার ভূষণ শেরপা বলেন, সৌন্দর্যায়নের কাজ শেষ হলেই টেন্ডার ডেকে গেস্টহাউসটি বেসরকারি সংস্থার হাতে তুলে দেওয়া হবে। পর্যটনকেন্দ্রটি চালু হলে জয়গাঁর পর্যটনে নতুন পালক যোগ হবে বলে আশা পর্যটন ব্যবসায়ীদের। এই উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন জয়গাঁ ট্রাভেলস ওয়েলফেয়ার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সুরেশ ঠাকুরি। তিনি বলেন, সরকারি গেস্টহাউস চালু হলে জয়গাঁতে পর্যটক আসতে শুরু করবে। এলাকার অর্থনৈতিক ব্যবস্থায় নতুন মোড় আসবে।

ভুটানগেট কবে খুলবে? এ প্রশ্নের উত্তর এখনও অজানা জয়গাঁবাসীর। প্রায় দেড় বছর ধরে ভুটানগেট বন্ধ থাকার ফলে সীমান্তবর্তী শহর জয়গাঁয় পর্যটকদের যাতায়াত প্রায় শূন্য। ব্যবসাও তলানিতে ঠেকেছে। প্রভাব পড়েছে পর্যটনেও। পরিস্থিতি কবে স্বাভাবিক হবে, উত্তর জানা নেই কারও। তাই জয়গাঁ ডেভেলপমেন্ট অথরিটি স্থানীয় পর্যটনকেন্দ্রগুলিকে সকলের সামনে তুলে ধরে বিকল্প আয়ের পথ খুঁজছে।

দেশ-বিদেশের পর্যটকরা জয়গাঁ এসে ভুটানগেট পেরিয়ে ফুন্টশোলিং শহর, থিম্পু কিংবা পারো ঘুরতে যেত। পর্যটনের রুটম্যাপে ব্রাত্যই থেকে যেত জয়গাঁর গেরিগাঁওয়ের মতো অফবিট স্থানগুলি। কিন্তু এবার স্থানীয় পর্যটনগুলি পর্যটকের সামনে তুলে ধরতে উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বোর্ডের তরফে। জয়গাঁ শহরজুড়ে অনেক টুরিস্ট লজ এবং হোটেল থাকলেও এই প্রথম গেরিগাঁওয়ে জেডিএর উদ্যোগে তৈরি হচ্ছে সরকারি গেস্টহাউস। এতে পর্যটনের উন্নতির পাশাপাশি জেডিএর আয় বাড়বে বলে আশা গঙ্গাপ্রসাদবাবুর।