রাঁচি, ২০ ডিসেম্বরঃ নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিরোধী বিক্ষোভের জেরে উত্তপ্ত দেশ। এরইমধ্যে শুক্রবার ঝাড়খণ্ড বিধানসভার পঞ্চম তথা শেষ দফার ভোটগ্রহণ। এদিন রাজ্যের ছ’টি জেলার মোট ১৬টি আসনে ভোটগ্রহণ হবে। এই দফায় একাধিক তারকা প্রার্থীর ভাগ্য নির্ধারণ হতে চলেছেন। এরমধ্যে প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা জেএমএমের কার্যনির্বাহী সভাপতি হেমন্ত সোরেন, প্রাক্তন উপ-মুখ্যমন্ত্রী স্টিফেন মারান্ডি অন্যতম। আগামী ২৩ ডিসেম্বর রাজ্যের বিধানসভা ভোটের ফল প্রকাশিত হবে।

শেষ দফার নির্বাচনে ৪০,০৫,২৮৭ জন ভোটার তাঁদের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করতে চলেছেন। এরমধ্যে ১৯,৫৫,৩৩৬ জন মহিলা এবং ৩০ জন তৃতীয় লিঙ্গের ভোটার আছেন। ২৯ জন মহিলা সহ মোট ২৩৭ জন প্রার্থীর ভাগ্য পরীক্ষা এদিন।

এদিন যে কেন্দ্রগুলিতে ভোট নেওয়া হবে তারমধ্যে ৫টি মাওবাদী প্রভাবিত অঞ্চলের মধ্যে অবস্থিত। ফলে নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে সেখানে সকাল ৭টা থেকে দুপুর ৩টে পর্যন্ত ভোটগ্রহণ চলবে। বাকি ১১টি আসনে বিকেল ৫টা পর্যন্ত ভোট দিতে পারবেন ভোটাররা।

অবাধ ও সুষ্ঠু ভোটদান নিশ্চিত করতে সমস্ত বন্দোবস্ত করেছে নির্বাচন কমিশন। ভোটের কাজে মোতায়েন করা হয়েছে ৪০ হাজারের বেশি পুলিশকর্মীকে। ১,৩২১টি বুথকে ক্রিটিক্যাল এবং ১,৭৬৫টি বুথকে সংবেদনশীল হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। আর মাওবাদী প্রভাবিত এলাকার ৩৯৬টি বুথকে ‘ক্রিটিকাল’ এবং ২০৮টি বুথকে সংবেদনশীল হিসেবে চিহ্নিত করেছে প্রশাসন। সেগুলির নিরাপত্তা সুনিশ্চিত করতে বিশেষ বন্দোবস্ত করা হয়েছে। সব মিলিয়ে ১,৩৪৭টি বুথে ওবেবকাস্টিংয়ের ব্যবস্থা করেছে প্রশাসন।