পরের বিশ্বকাপের দিন গুণছে কিউয়িরা

দুবাই : ২০১৫ থেকে ২০২১।

৬ বছর। তিন-তিনটি বিশ্বকাপ ফাইনাল। প্রতিবারই স্বপ্নের অপমৃত্যু। তিরে এসে তরি ডোবা। বিশ্বকাপের আসরে আবারও ট্র‌্যাজিক নায়ক হয়ে ফেরার চেনা স্ক্রিপ্ট।

- Advertisement -

গত জুনে ভারতকে হারিয়ে ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ জিতেছে নিউজিল্যান্ড। যদিও বিশ্বকাপ-যন্ত্রণা সহজে মেটার নয়। ম্যাচের শেষ বলটা ম্যাক্সওয়েল বাউন্ডারিতে ছিটকে দিতেই যন্ত্রণার ছবি কিউয়ি শিবিরে।

স্বপ্নভঙ্গের হতাশা থাকলেও ভেঙে পড়তে নারাজ উইলিয়ামসনরা। বরং হারের মঞ্চ থেকে নতুন করে স্বপ্ন দেখতে চান তারা। সে কথাই শোনালেন জিমি নিশাম। দুবাই ইনটারন্যাশনাল স্টেডিয়ামকে গুডবাই জানানোর আগে নিশাম বলে দিলেন, এখনই থেকে পরের বিশ্বকাপের দিন গোনা শুরু!

আগামী বছর অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে পরবর্তী টি২০ বিশ্বকাপ। নিশামের টার্গেট হতাশাটাকে পড়শি অস্ট্রেলিয়াতে মেটানো। আক্ষেপ ঝেড়ে দ্রুত সেই লক্ষ্যে কাজ শুরু করে দিতে চান। প্রথম টি২০ বিশ্বকাপ জয়ের আনন্দে যখন ওয়ার্নার-মার্শদের ঘিরে বিজোয়ৎসবে মশগুল তখন নিশামের ইঙ্গিতপূর্ণ টুইট। ২০২২-এর অক্টোবের অনুষ্ঠিত টি২০ বিশ্বকাপের দিকে ইঙ্গিত করে নিশামের দুই শব্দের টুইট। লিখেছেন, ৩৩৫ দিন।

ম্যাচের ট্র‌্যাজিক নায়ক নিঃসন্দেহে ব্ল্যাক ক্যাপস অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। সতীর্থদের ব্যর্থতাকে প্রায় একার হাতে ঢেকে দিয়েছিলেন। টি২০ বিশ্বকাপ ফাইনালে যুগ্মভাবে সর্বোচ্চ ৮৫ রানের রেকর্ডও গড়েন (২০১৬-য় ইডেনে অনুষ্ঠিত ফাইনালে মার্লন স্যামুয়েলসও ৮৫ করেছিলেন)।

দলগতভাবেও কুড়িকুড়ির ফাইনালে প্রথমে ব্যাটিং করে সর্বোচ্চ ১৭২ রানের নজিরও গড়ে নিউজিল্যান্ড। গত ৬টি আসরে এত রান ওঠেনি। যদিও রেকর্ড স্কোরও ধোপে টেকেনি ওয়ার্নার-মার্শদের ঝোড়ো ইনিংসের সামনে। যন্ত্রণাটা তাই আরও বেশি কুড়েকুড়ে খাচ্ছে ব্ল্যাক ক্যাপস অধিনায়ককে। আড়াল করলেন না, কাজ শেষ করতে না পারার আক্ষেপ।