পরিবর্তন যাত্রায় যোগ দিয়ে তৃণমূলকে একহাত নিলেন দলত্যাগী সাংসদ

77

বর্ধমান: ‘বিজেপির পরিবর্তন যাত্রা’য় যোগ দিয়ে চাঁচাছোলা ভাষায় তৃণমূলকে আক্রমণ করলেন তৃণমূলত্যাগী সাংসদ সুনীল মণ্ডল। রবিবার বিজেপির পূর্ব বর্ধমানের কাটোয়ার সাংগাঠনিক জেলার তত্বাবধানে তিন দিনের পরিবর্তন যাত্রা কর্মসূচীর আয়োজন করা হয়।

শনিবার কেতুগ্রামের ফুটিসাঁকো থেকে সেই যাত্রার সূচনা হয়। রবিবার দ্বিতীয় দিনে পরিবর্তন যাত্রার রথ কাটোয়া শহর পরিক্রমা করে। সদ্য তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়া সাংসদ সুনীল মণ্ডল ছাড়াও  বিজেপির রাজ্যসভার সাংসদ রুপা গঙ্গোপাধ্যায় এদিনের পরিবর্তন যাত্রায় অংশ নেন। যাত্রাপথের মাঝে সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সুনীল মণ্ডল কাটোয়ার বিধায়ক ও তৃণমূলের বিরুদ্ধে বেনজির আক্রমণ শানান। যা নিয়ে তীব্র ক্ষোভ ব্যক্ত করেছেন কাটোয়ায় তৃণমূল বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়।

- Advertisement -

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সুনীল মণ্ডল কাটোয়ার তৃণমূল বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায়কে কটাক্ষ করেন। পাশাপাশি তিনি বলেন, ‘তৃণমূলের দুর্নীতি, তোলাবাজির কুকীর্তি আমরা প্রচার করতে চাই। পরিবর্তন যাত্রার মাধ্যমে তৃণমূলের দুর্নীতি ও কুকীর্তি জনসমক্ষে তুলে ধরাই আমাদের কাজ। আগামী দিনে তৃণমূলকে বুঝিয়ে দেব পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূলের কোনও জায়গা নেই। তৃণমূল যে দুর্নীতিগ্রস্ত ও তোলাবাজের দল তা আমরা প্রমান করে দেব বলে সুনীল মণ্ডল মন্তব্য করেন।’ একই সুনীল মণ্ডল হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ‘যে যে এলাকার তৃণমূলের যত নেতা তোলাবাজি করেছে তাদের সমস্ত টাকা আদায় করে সেই টাকায় আমরা এলাকার উন্নয়ন করব।’ তৃণমূল কংগ্রেসের সমালোচনা করে সুনীল মন্ডল আরও বলেন, ‘মুখে সোনার বাংলা গড়ে তোলার প্রতিশ্রুতি দিয়ে তোলাবাজি নয়, আমরা ক্ষমতায় এসে উন্নয়ন দিয়ে সোনার বাংলা গড়ে তুলব।’

কাটোয়ায় বিধায়ক রবীন্দ্রনাথ চট্টোপাধ্যায় তৃণমূলত্যাগী সাংসদ সুনীল মণ্ডলের এহেন বক্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন। রবীবাবু বলেন, ‘আমার জাত তুলে কথা বলছে। এটাই বিজেপির কালচার।’ পালটা তোপ দেগে রবীন্দ্রনাথবাবু বলেন, ‘সুনীল মণ্ডল তৃণমূলে থাকাকালীন অনেক দুর্নীতি করেছে। দলের শীর্ষ নেতৃত্বকে আমরা তা জানিয়েছিলাম। দলীয় স্তরে তার তদন্ত হয়। সেই তদন্তে সুনীল মন্ডলের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অনেক প্রমান পাওয়া যায়। যখন সুনীল বুঝতে পারল আইনগত ব্যবস্থা নিয়ে তৃণমূল নেতৃত্ব তাঁকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়ার কথা ভাবছে তখনই সুনীল তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে পালিয়ে যায়।’