নির্বাচন পরবর্তী হিংসার বলি কর্মীদের বাড়িতে নাড্ডা

74

কলকাতা: বাংলার মসনদ দখলের লড়াই শেষ। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে একক সংখ্যা গরিষ্ঠতায় জয়ী ব্র্যান্ড মমতা। কিন্তু জয়ের পরই পশ্চিমবঙ্গের অবস্থা অগ্নিগর্ভ। রাজ্যের বিস্তীর্ণ এলাকাতে চোখ রাঙাচ্ছে সন্ত্রাস। অভিযোগ পালটা অভিযোগে বাংলার রাজ্য রাজনীতি এখন উত্তপ্ত। বারবার উঠে আসছে বিরোধীদের আক্রান্ত হওয়ার অভিযোগ। আর সেই বিষয়টি খতিয়ে দেখতেই রাজ্যে এসে পৌঁছোলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা।

দমদম বিমান বন্দরে নেমেই তিনি দলের রাজ্য নেতৃত্বের কাছে থেকে জেনে নেন রাজ্যের বর্তমান পরিস্থিতি। আর তারপরই আক্রান্ত কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে পাশে থাকার আশ্বাস দেন তিনি। দক্ষিণ ২৪ পরগণার প্রতাপনগরে গিয়ে নাড্ডা দেখা করেন নির্বাচন পরবর্তী সন্ত্রাসে আক্রান্তদের পরিবারের সঙ্গে। নাড্ডা বলেন, ‘দেশভাগের সময় এমন ঘটনার কথা শুনেছিলাম। তবে স্বাধীন ভারতে নির্বাচনের পর এধরণের হিংসা কোথাও হয়নি।’

- Advertisement -

নির্বাচনি পরবর্তী হিংসার জন্য ইতিমধ্যেই সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়ে সিবিআই তদন্তের দাবি করেছে বিজেপি। আর সেবিষয় নিজের টুইটে স্পষ্টভাবে জানিয়েছেন বিজেপির মুখপাত্র এবং আইনজীবী গৌরব ভাটিয়া। অন্যদিকে বিজেপি নেতা ড. অনির্বান গাঙ্গুলি তৃণমূলের এই আচরণকে ফ্যাসিবাদের সঙ্গে তুলনা করেছেন। এরইসঙ্গে পশ্চিমবঙ্গে এই নির্বাচন পরবর্তী সন্ত্রাসের প্রতিবাদে ৫ মে সারা ভারত জুড়ে ধরনার ডাক দিয়েছে বিজেপি। অভিযোগ, নির্বাচনি পরবর্তী সন্ত্রাসের বলি হয়েছে ৯ জন বিজেপি কর্মী। আহত এবং ঘর ছাড়ার সংখ্যাও কম না। আর সেই সমস্ত কথা মাথায় রেখেই দুদিনের সফরে রাজ্যে পরিস্থিতি ক্ষতিয়ে দেখতে এসেছেন জেপি নাড্ডা।