সমাজসেবার স্বীকৃতি, মালদা থেকে পদ্মশ্রী পাচ্ছেন কমলী সোরেন

462

গাজোল: পদ্মশ্রী প্রাপকদের তালিকায় এবার জুড়ে গেল মালদা জেলার নাম। মালদা জেলার তপশিলি জাতি এবং উপজাতি অধ্যুষিত গাজোল ব্লকের কমলী সরেন (৫০)কে পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত করতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। মূলত সমাজসেবামূলক কাজের স্বীকৃতি হিসেবে তাঁকে এই সম্মান দেওয়া হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। পদ্মশ্রী সম্মান পেয়ে স্বাভাবিকভাবেই উৎফুল্ল কমলীদেবী। এই পুরস্কার আগামী দিনে তাঁকে বাড়তি উৎসাহ জোগাবে বলে জানান তিনি।

গাজোল-১ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার কোটালহাটি গ্রাম। গোটা এলাকাটি তপশিলি জাতি এবং উপজাতি সম্প্রদায় অধ্যুষিত। এই গ্রামে একটি আশ্রম রয়েছে কমলীদেবীর। রয়েছে বিভিন্ন দেবদেবীর মন্দির। এই আশ্রমকে কেন্দ্র করেই সমাজসেবামূলক নানা ধরনের কাজ করে চলেছেন তিনি। যে সকল আদিবাসী খ্রিস্টান এবং মুসলিম ধর্মাবলম্বী হচ্ছেন তাদের আবার ধর্মান্তরিত করে হিন্দু সমাজে ফিরিয়ে আনার কাজ করেন তিনি। ইতিমধ্যেই ২০ জনকে এভাবেই ফের মূলস্রোতে ফিরিয়ে নিয়ে এসেছেন কমলী সোরেন। গোটা রাজ্য জুড়েই কাজ করে চলেছেন তিনি।

- Advertisement -

কমলীদেবী জানালেন, তার বাপের বাড়ি পুরাতন মালদা থানা এলাকার যাত্রাডাঙ্গা বাগমারা গ্রামে। প্রথম বিয়ে হয়েছিল গাজোলের গোডাং তালতলা এলাকার শাওনা হেমরমের সাথে। কিছুদিনের মধ্যে স্বামী মারা যাওয়ার পর রাজেন সাধু নামক সন্ন্যাসীর কাছে দীক্ষা নেন তিনি। এরপর থেকে আশ্রমেই থাকতেন। সেখানেই পরিচয় হয় ভগন কিস্কু নামে এক আবাসিকের সঙ্গে। পরে তার সঙ্গে দ্বিতীয় বিয়ে হয়। এরপর আশ্রম থেকে নানা ধরনের সমাজসেবামূলক কাজে জড়িয়ে পড়েন তিনি। বিরামহীনভাবে আদিবাসীদের মধ্যে ধর্মান্তরনের বিরুদ্ধে প্রচার চালিয়ে আসছেন। কমলী সোরেন বলেন, ‘রাতের বেলায় ফোনের খবর পাই। এই পুরস্কার কাজে আরও উৎসাহ যোগাবে।’