শিলচর, ১২ জুনঃ গত ২৪ ঘণ্টা ধরে টানা বর্ষণের জেরে বন্যার কবলে অসমের বরাক উপত্যকার করিমগঞ্জ জেলা।  বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী এই জেলার দুই নদী-লঙাই ও সিংলার জল বিপদসীমার প্রায় দুমিটার উপর দিয়ে বইছে। রাজ্যের জলসম্পদ বিভাগ সূত্রে জানা গিয়েছে, গত কুড়ি বছরে এমন জলস্ফীতি দেখা দেয়নি এই দুটি নদীতে। জলসম্পদ বিভাগের এগজিকিউটিভ ইঞ্জিনিযার অচিন্ত্য রায় জানান, এটা গত দুই দশকের রেকর্ড।  তিনি জানান, দুটি নদীর উত্তিস্থল মিজোরামের পাহাড়ে প্রবল বর্ষণের জেরেই এই জলস্ফীতি দেখা দিয়েছে।

বিভাগীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, করিমগঞ্জ জেলার পাথারকান্দি অঞ্চলের  নয়াডহরে মঙ্গলবার বিকেলে লঙাইয়ে বাঁধ ভেঙে যায়। প্লাবিত হয় বিস্তীর্ণ অঞ্চল। প্রবল বেগে বইছে নদীর জল। ইতিমধ্যেই তলিয়ে গিয়েছে প্রায় ৫০ টি গ্রাম। প্রাণ বাঁচাতে নিরাপদ আশ্রয়ে ঠাঁই নিয়েছেন বহু মানুষ। করিমগঞ্জ জেলা প্রশাসন সূত্রে জানা গিয়েছে,  আরও কয়েকটি জায়গায় বাঁধ ভাঙার আশঙ্কা রয়েছে। পরিস্থিতির ওপর কড়া নজর রাখা হচ্ছে। অন্যদিকে, প্রবল বর্ষণে বরাক উপত্যকার প্রধান শহর শিলচরের বিভিন্ন এলাকা প্লাবিত হয়ে পড়েছে।  বিভিন্ন রাস্তা, বাড়িঘর এখন জলের তলায়। অনুন্নত নিকাশি ব্যবস্থার জেরেই এই সমস্যা বলে অভিযোগ জানিয়েছেন শহরের বাসিন্দারা।