৪ কোটি টাকার কর্মতীর্থে নেশার আখড়া, ভবিষ্যৎ নিয়ে প্রশ্ন

352

বিশ্বজিৎ সাহা  মাথাভাঙ্গা : মাথাভাঙ্গা মহকুমায় শীতলকুচির খলিসামারিতে কর্মতীর্থ ভবনের ১৫৮টি স্টলের মধ্যে মাত্র ৫টি স্টলই চালু রয়েছে। অধিকাংশ স্টল বন্ধ থাকায় এবং গোটা কমপ্লেক্সের বিভিন্ন গলি শুনসানের জেরে ভবনটি নেশার আখড়ায় পরিণত হয়েছে বলে অভিযোগ। এছাড়া অনেকেই সেখানে অবাধে শৌচকর্ম করছেন বলেও অভিযোগ। ফলে কর্মতীর্থের পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। এসব রোধে পর্যাপ্ত নজরদারির অভাব রয়েছে বলেই অভিযোগ উঠেছে। এছাড়াও কর্মতীর্থে ব্যবসা করতে ব্যবসায়ীরা সেভাবে আগ্রহী না হওয়ায় ৪ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত ওই ভবনটির ভবিষ্যৎই বা কী হবে তা নিয়ে সন্দিহান ওই এলাকার বাসিন্দারা।

কর্মতীর্থ পরিচালন কমিটির অন্যতম সদস্য আবুবক্কর সিদ্দিকী বলেন, স্টলের সেলামি ৫০ হাজার টাকা ধার্য করা হলেও ১৫৮টি স্টলের মধ্যে এই পর্যন্ত মাত্র ২৭টি স্টলই বণ্টন হয়েছে। যাঁরা স্টল নিয়েছেন তাঁদের ৩০ হাজার টাকা করে ফেরতও দেওয়া হয়েছে। বর্তমানে ৫ জন ব্যবসায়ী স্টল নিয়ে ব্যবসা করছেন। কর্মতীর্থে স্টল নিয়ে মোবাইল রিপেয়ারিং-এর ব্যবসা করছেন এলাকারই যুবক তাপস বর্মন। তিনি বলেন, গোটা কর্মতীর্থ চত্বরের অধিকাংশ স্টল বন্ধ থাকায় গোটা এলাকা কার্যত শুনসান থাকে। তাই অনেক ক্রেতা, বিশেষ করে মহিলা ক্রেতারা কর্মতীর্থ এড়িয়ে চলেন। এলাকার ব্যবসায়ী আবুল কালাম আজাদ থেকে শুরু করে টোটোচালক পুলক বর্মন, বিজয় বর্মনদের অভিযোগ, পরিকল্পনাহীনভাবে কর্মতীর্থ ভবন তৈরি হওয়ায় কমপ্লেক্সের ভিতরের গলিতে ব্যবসা করতে যেমন অনেকেই আগ্রহী নন, তেমনি ক্রেতারাও সেখানে যেতে চান না। আবুল কালাম আজাদ বলেন, কর্মতীর্থের ভিতর মদ্যপদের আড্ডা এবং যত্রতত্র শৌচকর্মের ফলে পরিবেশও দূষিত হচ্ছে।

- Advertisement -

কর্মতীর্থ পরিচালনার জন্য প্রশাসনের আধিকারিক সহ এলাকার ব্যবসায়ীদের নিয়ে পরিচালন কমিটি রয়েছে। কমিটির অন্যতম সদস্য শীতলকুচি ব্লকের জযে্ট বিডিও জোলান্ড লেপচা বলেন, কর্মতীর্থের ভিতর মদ্যপান এবং শৌচকর্মের বিষয়টি আমার জানা নেই। তবে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। শীতলকুচির বিধায়ক হিতেন বর্মন বলেন, কর্মতীর্থের স্টলগুলিতে যাতে ব্যবসায়ীরা ব্যবসা শুরু করেন সে ব্যাপারে উদ্যোগ গ্রহণ করা হচ্ছে। কর্মতীর্থ চত্বরে নেশার আড্ডার অভিযোগ প্রসঙ্গে শীতলকুচি থানার ওসি কাজল সরকার বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে পদক্ষেপ করা হবে। কর্মতীর্থ চত্বরে পুলিশি টহলদারি বাড়ানো হবে।