জঙ্গি হামলায় নিহত কাশ্মীরি পণ্ডিত সরপঞ্চ

499

শ্রীনগর: জঙ্গিদের হাতে নিহত হলেন কাশ্মীরের অনন্তনাগের এক গ্রামের সরপঞ্চ। ফলের বাগানে ঢুকে ওই কাশ্মীরি পণ্ডিতকে গুলি করা হয়। হাসপাতালে নিয়ে গেলে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। এদিন নিজের ফলের বাগানে ছিলেন বছর চল্লিশের এই কাশ্মীরি পণ্ডিত। তাঁকে সন্ধে ৬টা নাগাদ, জঙ্গিরা তাঁকে খুব কাছ থেকে গুলি করে পালিয়ে যায়। নিহত সরপঞ্চের নাম অজয় পণ্ডিতিয়া ওরফে ভারতী। অজয় পণ্ডিতিয়া লার্কিপোরার লুকবাওয়ান গ্রামের সরপঞ্চ ছিলেন বলে কাশ্মীর পুলিশ জানিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে খবর,পণ্ডিতিয়া পরিবার ১৯৯০-এর দশকে দক্ষিণ কাশ্মীর থেকে চলে গিয়েছিল। তারপর বছর দু’য়েক আগে তিনি অনন্তনাগের বাড়িতে ফিরে আসেন। তিনি পঞ্চায়েত ভোটে কংগ্রেসের টিকিটে জিতে সরপঞ্চ হন।

- Advertisement -

এদিকে এই মৃত্যুর পরে সেনা ও পুলিশের যৌথ বাহিনী জঙ্গিদের খোঁজে তল্লাশি শুরু করেছে। সোমবার মধ্যরাত পর্যন্ত কোনও জঙ্গি ধরা পড়েনি বলে খবর। অন্যদিকে, এই হত্যার নিন্দা করেছে জম্মু-কাশ্মীরের প্রত্যেকটি রাজনৈতিক দল। দলীয় কর্মীর মৃত্যুতে ইতিমধ্যে শোকপ্রকাশ করেছেন রাহুল গান্ধীও। সরপঞ্চের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে রাহুল গান্ধী বলেন, ‘কাশ্মীরে গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার জন্য জীবন উত্‍সর্গ করেছেন অজয়। এই দুঃখের সময়ে আমরা আপনাদের সঙ্গে আছি। হিংসা কখনও জয়ী হতে পারবে না।’ অন্যদিকে খুনের বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি করেছেন জম্মু-কাশ্মীর প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি গুলাম আহমেদ মীর।

কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জিতেন্দ্র সিংয়ের বলেন, ‘তৃণমূল স্তরে গণতন্ত্রিক প্রক্রিয়াকে পরাস্ত করতে দুষ্কৃতীরা মরিয়া প্রচেষ্টা চালাচ্ছে।’ তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীই তৃণমূল স্তরে গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগের সুযোগ করে দেন।এই হত্যার নিন্দা করে কাশ্মীরের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ। পিডিপি প্রেসিডেন্ট মেহবুবা মুফতির কন্যা ইলতুজা মুফতিও মায়ের সোশ্যাল অ্যাকাউন্ট থেকে ঘটনার নিন্দা জানিয়ে পোস্ট করেছেন।