মাঝপথে বৈঠক ছাড়লেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী

নয়াদিল্লি : অলিম্পিকের প্রস্তুতি নিয়ে হওয়া বৈঠকে বিতর্কে জড়ালেন কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রী কিরেন রিজিজু এবং ভারতীয় অলিম্পিক অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি নরিন্দর বাত্রা। এমনকি ক্রীড়ামন্ত্রী বৈঠক মাঝপথে ছেড়ে চলে আসেন বলেও জানা গিয়েছে।

মঙ্গলবার দিল্লিতে শীর্ষস্থানীয় ক্রীড়াকর্তাদের বৈঠকে মূলত টোকিও অলিম্পিক এবং করোনাকালে দেশের খেলাধুলোর পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হয়। করোনার জন্য একের পর এক প্রতিযোগিতা বাতিল হয়ে যাওয়ায় বেশ কয়েকজন অ্যাথলিটের টোকিওর টিকিট পাওয়া নিয়ে প্রশ্ন উঠছে। যেমন ব্যাডমিন্টনে ইন্ডিয়া ওপেন এবং মালয়েশিয়া ওপেন বাতিল হয়ে যাওয়ায় সাইনা নেহওয়াল এবং কিদাম্বী শ্রীকান্তের মতো তারকা শাটলারদের অলিম্পিক স্বপ্ন প্রায় শেষ হয়ে গিয়েছে। এমনকি সেইসব ইভেন্টের কোটা কীভাবে বন্টন করা হবে, তা নিয়ে আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটি (আইওসি) কিছু জানায়নি।

- Advertisement -

সূত্রের খবর, এদিন বৈঠকে সেই প্রসঙ্গে উঠলে রিজিজু দেশের সমস্ত ক্রীড়া ফেডারেশনকে একসঙ্গে আইওসির উপর চাপ দেওয়ার কথা জানান। তিনি বলেন, আইওসিকে প্রয়োজনীয় তথ্য দেওয়ার জন্য বিভিন্ন ফেডারশেন এবং সাইয়ে মধ্যে সংযোগ বাড়াতে হবে। তাঁর এই কথার প্রতিবাদ করে বাত্রা বলেন, আমি তো ব্যক্তিগতভাবে সমস্ত ফেডারেশনের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। এর জবাবে ক্রীড়ামন্ত্রী জানান, তিনি এভাবে বলতে চাননি। তাঁর শব্দ চয়নে ভুল হয়েছে। তিনি শুধুমাত্র ভারতীয় ক্রীড়ার উন্নতি চাইছেন। এরপর বাত্রা ক্ষমা চাইলেও ক্রীড়ামন্ত্রী বৈঠক ছেড়ে চলে যান।

এদিনের বৈঠকে রিজিজু এবং বাত্রা ছাড়াও ক্রীড়া সচিব রবি মিত্তল, সাইয়ের ডিরেক্টর সন্দীপ প্রধান, জাতীয় অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশনের সভাপতি আদিল সুমারিওয়ালা, যুগ্ম সচিব (ক্রীড়া) এলএস সিং প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ক্রীড়াবিদদের মধ্যে ছিলেন সিনিয়র শ্যুটার গগন নারাং। এছাড়া বিদেশ মন্ত্রকের প্রতিনিধিরাও বৈঠকে ছিলেন।