মণ্ডপে উদ্যোক্তাদের ঢোকার অনুমতি মিলল, দর্শকদের নয়

828

লকাতা: সোমবার পুজো মণ্ডপে দর্শনার্থীদের প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিল কলকাতা হাইকোর্ট। রায় পুনর্বিবেচনার জন্য হাইকোর্টে আবেদন জানিয়েছিল ফোরাম ফর দুর্গোৎসব। করোনা সংক্রমণ রুখতে আগের রায় বদলানো যাবে না বলে এদিন স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছে আদালত। অঞ্জলি, সন্ধি পুজো ও সিঁদুর খেলাতেও নিষেধাজ্ঞা বহাল রয়েছে।

সোমবার আদালত জানিয়েছিল, পুজো মণ্ডপ দর্শকশূন্য রাখতে হবে। বুধবার বিচারপতি অরিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায় ও বিচারপতি সঞ্জীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের এজলাসে রিভিউ পিটিশনের শুনানি হয়। বিচারপতিরা আগের রায়ে অল্পকিছু পরিবর্তন করেছেন। এদিনের রায়ে বলা হয়েছে, নো এন্ট্রি জোনের ভিতরে ও মণ্ডপের বাইরে ঢাকিরা উপস্থিত থাকতে পারবেন। বড় পুজোগুলির ক্ষেত্রে মণ্ডপ চত্বরে কমিটির ৬০ জন সদস্য থাকতে পারবেন। তবে একসঙ্গে মণ্ডপে ঢুকতে পারবেন ৪৫ জন।

- Advertisement -

ফোরাম ফর দুর্গোৎসব-এর পক্ষের আইনজীবী কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় আদালতের কাছে অনুরোধ করেছিলেন, অঞ্জলির জন্য যাতে সপ্তমী, অষ্টমী ও নবমীতে ধাপে ধাপে দর্শনার্থীদের মণ্ডপে ঢুকতে দেওয়া হয়। এছাড়া সিঁদুর খেলার সময়ও দর্শনার্থীদের মণ্ডপে ঢুকতে দেওয়ার দাবি জানানো হয়েছিল। সিঁদুর খেলা, অঞ্জলির জন্য মণ্ডপে ঢোকার আবেদন এদিন খারিজ করে দিয়েছে আদালত। বিচারপতিরা স্পষ্ট জানিয়েছেন, রায় পরিবর্তন করা সম্ভব নয়।

যদিও আদালতের রায়ের পর নবান্নের তরফে কোনও সংশোধিত নির্দেশিকা জারি করা হয়নি।