১ জুলাই খুলছে কালীঘাট মন্দির, আপাতত বন্ধ থাকবে গর্ভগৃহ

328

অনলাইন ডেস্ক: দক্ষিণেশ্বর, বেলুড় মঠ আগেই খুলেছে। রথের দিন তারাপীঠ মন্দির খুলবে বলে ঘোষণা করা হয়েছে। আর এবার ভক্তদের জন্য খুলতে চলেছে কালীঘাট মন্দির। ১ জুলাই থেকে কালীঘাট মন্দির খুলছে।

কালীঘাট মন্দির কমিটি সূত্রে জানা গিয়েছে, ৩০ জুন পর্যন্ত লকডাউন কার্যকর থাকায় সেই দিন অবধি মন্দির বন্ধ রাখা হচ্ছে। ১ জুলাই থেকে সকাল ৭টা থেকে বেলা ১২টা ও বিকেল ৪টে থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত মন্দির খোলা থাকবে।

- Advertisement -

তবে মন্দির খুললেও একাধিক বিধি নিষেধ আরোপ করা হচ্ছে। একসঙ্গে ১০ জনের বেশি মন্দিরে ঢুকতে পারবেন না। ভক্তদের মাস্ক, স্যানিটাউজার ব্যবহার বাধ্য়তামূলক করা হচ্ছে। মন্দিরে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হলেও আপাতত ভক্তরা গর্ভগৃহে প্রবেশ করতে পারবেন না। পাশাপাশি পুজো দেওয়ার জন্য কোনও সামগ্রী আনা যাবে না। ভক্তদের ২ নম্বর গেট দিয়ে মন্দির চত্বরে প্রবেশ করতে পারবেন। ৪ নম্বর গেট দিয়ে বের হতে হবে।

গতকালই তারাপীঠ মন্দির খোলার কথা ঘোষণা করা হয়। রথের দিন তারাপীঠ মন্দির খোলা হলেও চলবে না রথ। এই মুহূর্তে কোনও পুণ্যার্থী গর্ভগৃহেও প্রবেশ করতে পারবেন না। বাইরে থেকেই মা তারার দর্শন করতে হবে। ১৮ মার্চ থেকে তারাপীঠ মন্দির পুণ্যার্থীদের জন্য বন্ধ করে দেওয়া হয়। প্রতিদিন নিত্যপুজো হলেও কোনও মানুষ মন্দিরে প্রবেশ করতে পারতেন না।

তারাপীঠ মন্দির কমিটির সভাপতি তারাময় মুখোপাধ্যায়, সম্পাদক ধ্রুব সাহা জানান, সমস্ত রকম রীতি মেনে পুজো করা হবে। ইতিমধ্যে তিনটি স্যানিটাইজার টানেল বসানো হয়েছে। পুণ্যার্থীরা তার ভিতর দিয়ে প্রবেশ করবেন। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে পুণ্যার্থীদের দাঁড়াতে হবে। এই মুহূর্তে সেবাইত ছাড়া কাউকে গর্ভগৃহে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। বাইরে থেকেই মা তারাকে দর্শন করে সন্তুষ্ট থাকতে হবে।

এর আগে ১৩ জুন ভক্তদের দর্শনের জন্য খুলে দেওয়া হয় দক্ষিণেশ্বর মন্দির। সকাল ৭টা থেকে ১০টা ও বিকেলে সাড়ে ৩টে থেকে সাড়ে ৬টা পর্যন্ত মন্দির খোলা থাকবে।  মন্দির খোলার পর একসঙ্গে ১০ জন করে পুণ্যার্থীকে ভিতরে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে। পাশাপাশি ঢোকার আগে তাঁদের হাত যেমন স্যানিটাইজ করা হচ্ছে, তেমনি তাঁদের শরীরের তাপমাত্রাও পরীক্ষা করা হচ্ছে।