নিউজ ব্যুরো, ২১ জুলাই : তৃণমূল কংগ্রেসের শহিদ দিবসের সভা ঘিরে কলকাতাজুড়ে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হয়েছে। নিরাপত্তার জন্য মোতায়েন করা হয়েছে প্রায় পাঁচ হাজার পুলিশ। ধর্মতলায় সভাস্থলের কাছে থাকবে পুলিশের ওয়াচ টাওয়ার। প্রস্তুত রাখা হয়েছে অ্যাম্বুল্যান্স ও বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনী। শুধু রাস্তায় নয়, সম্প্রতি মেট্রো রেলে এক ব্যক্তির মৃত্যুর পর পাতালেও পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে আজ। বিভিন্ন স্টেশনে নজরদারি চালাবেন তাঁরা। সকাল থেকেই বিভিন্ন জেলা থেকে ধর্মতলার উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা। দূরের জেলাগুলি থেকে কর্মী-সমর্থকরা আগেই কলকাতা পৌঁছে গিয়েছেন। তাঁদের শহরের বিভিন্ন জায়গায় রাখা হয়েছে। সেখান থেকে সভায় যাবেন তাঁরা। সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কে রয়েছেন উত্তরবঙ্গের ৬ জেলার প্রায় ৩৫,০০০ সমর্থক। তাঁদের ধর্মতলায় আনার জন্য ১৩৫টি বাসের ব্যবস্থা করা হয়েছে। তৃণমূলের দাবি, লোকসভায় খারাপ ফলের পরও উত্তরবঙ্গ তেকে রেকর্ড সংখ্যক সমর্থক জড়ো হবেন এবারের শহিদ দিবসের সভায়।

অন্যদিকে, ২১ জুলাইয়ের সভায় যাওয়ার পথে বাঁকুড়ায় তৃণমূল কর্মী-সমর্থকদের বাসে হামলার অভিযোগ উঠল। শনিবার রাতে বাঁকুড়ার বিভিন্ন এলাকা থেকে কর্মী-সমর্থকদের নিয়ে কলকাতা রওনা দিয়েছিল কয়েকটি বাস। ইন্দাস থানার অন্তর্গত বাগিচাবাঁধ ও চেকপোস্টের মাঝে বাসগুলিকে লক্ষ্য করে থান ইঁট ছোড়া হয়। ভেঙে যায় পাঁচটি বাসের কাচ। জখম হন এক তৃণমূল কর্মী। ঘটনায় বাম-বিজেপি জড়িত বলে অভিযোগ তৃণমূলের। যদিও বিজেপি ও বামেদের তরফে অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে।