লিগের দৌড়ে ট্রাউ, কলকাতায় মন তুরসুনভের

সুমন্ত চট্টোপাধ্যায়, কলকাতা : ১৩ ম্যাচে ২৫ পয়েন্ট। লিগ টেবিলের একইবিন্দুতে ট্রাউ এফসি ও চার্চিল ব্রাদার্স।

রবিবার দুদলের মুখোমুখি সাক্ষাতে যারা জিতবে তারাই খেতাব জয়ের ব্যাপারে এগিয়ে যাবে কয়েক কদম। আপাতত সেই ম্যাচের দিকেই তাকিয়ে রয়েছেন কোমরন তুরসুনভ। ট্রাউ এফসিকে লিগশীর্ষে তুলে দেশে ফিরেছেন তাজিকিস্তানের এই তারকা। সামনেই বিশ্বকাপের যোগ্যতা অর্জন পর্বের ম্যাচ রয়েছে তুরসুনভদের। ফলে আই লিগে বাকি দুই ম্যাচে আর খেলা হচ্ছে না ২৬ বছরের এই উইঙ্গারের।

- Advertisement -

দেশে ফিরলেও কোমরনের মন পড়ে রয়েছে কলকাতায়। মনেপ্রাণে চাইছেন আই লিগ চ্যাম্পিয়ন হোক ট্রাউ। আই লিগে ট্রাউয়ের জার্সিতে ৬ গোলের পাশাপাশি ছটি অ্যাসিস্ট রয়েছে তাজাক তারকার। তুরসুনভের কথায়, মরশুমের শুরুতে কেউ ভাবতে পারেনি লিগের শীর্ষস্থান দখল করবে ট্রাউ। আমাদের নিরলস পরিশ্রম দলকে এই জায়গায় নিয়ে এসেছে। তবে এখান থেকে চ্যাম্পিয়ন হতে না পারলে পরিশ্রমের কোনও দাম থাকবে না। তাই চার্চিল ও গোকুলাম ম্যাচ আমাদের জিততেই হবে।

জোড়া হ্যাটট্রিকে নজরকাড়া ট্রাউয়ের বিদ্যাসাগর সিংকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত কোমরন। তিনি বলেন, বিদ্যাসাগর বুদ্ধিমান ফুটবলার। দারুণ গতি রয়েছে। আমি নিশ্চিত ও ভবিষ্যতে জাতীয় দলের হয়ে খেলবে। গত মরশুমে মোহনবাগানের হয়ে আই লিগ জিতেছিলেন। সেই প্রসঙ্গ উঠতেই আবেগে ভাসলেন কোমরন। তাঁর মন্তব্য, মোহনবাগানের হয়ে আই লিগ জেতা অন্যতম সেরা স্মৃতি। সমর্থকদের সেই উন্মাদনা, ভালোবাসা এখনও টের পাই। ফুটবল-পাগল কলকাতা তাঁর কাছে সেকেন্ড হোম জানাতে ভুললেন না তুরসুনভ।

আই লিগে খেলার ফাঁকে আইএসএলে চোখ রেখেছিলেন। ভারতের সর্বোচ্চ লিগে ইচ্ছা থাকলেও প্রতিদ্বন্দ্বিতায় আই লিগকে এগিয়ে রাখছেন তাজাক তারকা। কোমরন বলেন, আই লিগের দলগুলির মধ্যে বিশেষ ফারাক নেই। লিগের শীর্ষে থাকা দলকে হারানোর ক্ষমতা রয়েছে পয়েন্ট তালিকার নীচের দিকে থাকা টিমের। এই প্রতিদ্বন্দ্বিতা আইএসএলে চোখে পড়েনি। পরপর দুই ক্লাবের হয়ে আই লিগ জেতার বিরল নজিরের সামনে দাঁড়িয়ে বেশ আশাবাদী তুরসুনভ।