এমবাপের ইগো নিয়ে নাজেহাল দেশঁ

বুখারেস্ট : দিদিয়ে দেশঁর সুখের সংসারে ইগোর কালো মেঘ।

অপরাজিত থেকে ইউরোর নকআউটে উঠেও স্বস্তিতে নেই ফ্রান্সের কোচ দেশঁ। দলের তারকা ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপের ইগো সামলাতে নাজেহাল দশা তাঁর। এমনটাই মত জাতীয় দল এবং দুই ক্লাব মোনাকো ও প্যারিস সাঁ জাঁয় এমবাপের পূর্বসূরী উইঙ্গার জেরোম রথেনের।

- Advertisement -

ইউরো শুরুর আগেই অলিভার জিরুর সঙ্গে ঝামেলায় জড়িয়েছিলেন এমবাপে। প্রস্তুতি ম্যাচে জোড়া গোল করার পরও জিরু সাংবাদিক সম্মেলনে এসে মন্তব্য করেছিলেন, সতীর্থদের থেকে সেভাবে সাহায্য পাচ্ছেন না। এই ইস্যুতে পাল্টা সাংবাদিক সম্মেলন থেকে এমবাপেকে কোনওরকমে আটকান সতীর্থরা। কিন্তু ইউরোয় এখনও কোনও গোল বা অ্যাসিস্ট নেই তাঁর। গ্রুপে শীর্ষে থাকলেও বিশ্বচ্যাম্পিয়ন সুলভ পারফরমেন্স পাওয়া যায়নি এমবাপের থেকে।

এই পরিস্থিতিতে রথেনের বক্তব্য, কিলিয়ান মাঠে নেতা হওয়ার চেষ্টা করেছে। এটা ভালো। কিন্তু ওর ইগো এতটাই বড় হয়েছে যে মাঠেও নজরে আসছে। আমার মনে হয় দিদিয়ের এখন আর ওর ইগো সামলাতে পারছে না। ফলে ও যা খুশি তাই করছে। এটা ঠিক নয়। ও ভালো পারফর্ম করতে পারছে না। কিলিয়ান একটা ভালো ইউরো কাটাচ্ছে, আমরা এটা বলার জায়গায় নেই। এমনকি পিএসজির জার্সিতেও মরশুমের শেষদিকে ওর পারফরমেন্স তেমন ভালো ছিল না। ওর থেকে আমরা আরও ভালো প্রদর্শন আশা করি।

এমবাপের পরিবর্তে পল পোগবা বা আঁতোয়া গ্রিয়েম্যান ফ্রি-কিক মারুন, চাইছেন রথেন। তাঁর কথায়, অনুশীলনে হয়তো ও ভালো ফ্রি-কিক নেয়। কিন্তু এই ক্ষেত্রে পল বা গ্রিজুর ক্লাস ওর থেকে অনেক ভালো। ওর কোনও ভালো ফ্রি-কিকের কথা মনে পড়ছে না। ২৫ মিটার দূর থেকে মেরেছে এমন কোনও শট আছে? এই কাজটা সিনিয়ররাই করুক।

সোমবার রাতে বুখারেস্টের ন্যাশনাল এরিনায় সুইজারল্যান্ডের বিরুদ্ধে রথেনের পরামর্শ মানবেন এমবাপে, এমন সম্ভাবনা অবশ্য নেই বললেই চলে।