আরজি কর হাসপাতালের সাততলা থেকে মরণঝাপ মহিলা চিকিৎসকের

303

কলকাতা: বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে রাজ্যজুড়ে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে করোনা ভাইরাস। এই মারণ রোগ চাপ সৃষ্টি করেছে স্বাস্থ্য পরিষেবার উপরও। প্রতিনিয়ত বাড়ছে সংক্রমণের ঘটনা। সম্ভবত এহেন পরিস্থিতিতে শুক্রবার আরজি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের ছাদ থেকে মরণঝাঁপ দিয়েছেন এক মহিলা চিকিৎসক।

তাঁর সহকর্মী এক প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, হাসপাতালের ৭ তলা থেকে ঝাঁপ দেন পৌলমী সাহা (২৫) নামের ওই মহিলা চিকিৎসক। গুরুতর জখম অবস্থায় ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাঁর। ওই সহকর্মী আরও জানান যে, গতকাল ফিভার ক্লিনিকে ডিউটিতে ছিলেন পৌলমী। বেশ কিছুদিন ধরেই মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি। আর সম্ভবত সেই মানসিক অবসাদের জেরেই জেরেই আত্মহত্যার পথ বেছে নেন তিনি। গতকাল, শুক্রবার তাঁর মৃত দেহটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ। এটি আত্মহত্যা নাকি অন্য কোনও কারণ রয়েছে তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

- Advertisement -

এদিকে, হাসপাতালে এমন এক ঘটনা ঘটায় রীতিমতো চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে। অবসাদ থেকে আত্মহত্যা করেছেন পৌলমী, না এই ঘটনার নেপথ্যে অন্য কোন কারণ রয়েছে তা নিয়ে উঠছে একাধিক প্রশ্ন। অনেকেই মনে করছেন, করোনা আবহে প্রচণ্ড চাপের মধ্যে কাজ করতে হচ্ছে চিকিৎসকদের। শুধু তাই নয় কাজ করার সময় তারা যথাযথ সুরক্ষা পাচ্ছে না৷ পাচ্ছেন না পিপিই, মাস্ক ও প্রয়োজনীয় হ্যান্ড স্যানিটাইজার। ফলে অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন অনেকেই।