সরকারি জমিতে মন্দির নির্মাণ লালু পুত্র তেজপ্রতাপের

174

পাটনা, ২৩ জুনঃ চওড়া রাজপথের একদিক আটকে মন্দির গড়েছেন লালু পুত্র তেজপ্রতাপ। সবে জেনেও চুপ নীতীশ কুমার সরকার।

বিহারে মহাজোটবন্ধন সরকার থাকার সময় প্রতাপ রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী ছিলেন। পাটনার ৩, দেশরত্ন মার্গের সরকারি বাংলো দেওয়া হয় তাঁকে। তবে সেখানে না থেকে তিনি সেটি নিজের ছাত্র সংগঠন ডিএসএসের কাজকর্মে ব্যবহার করতেন। এছাড়া বাংলোয় আসা যাওয়ার জন্য সামনের বড় রাস্তা ব্যবহার না করে বাংলোর পেছনের দিকে একটা দরজা বানিয়ে সরু রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করতেন। সেই রাস্তা পাঁচিল দিয়ে ঘেরার সময় পড়ে যায় মহাজোটবন্ধন সরকার।

- Advertisement -

তবে তখনও বাংলো ছাড়েননি তিনি। বাংলোর পেছনের সরকারি জমিতে বেআইনি নির্মাণও বজায় রেখেছেন। ক্ষমতায় এনডিএ চলে এলেও তেজপ্রতাপ সরকারি জমিতেই বানিয়ে ফেলেছেন মন্দির। তাতে বসেছে দুটো এসি, এখন চলছে সাজানো গোছানোর কাজ। মন্দিরে রয়েছে নিরাপত্তা রক্ষীও। লালুর পরিবারের লোকজন ছাড়া আর কারোর প্রবেশাধিকার নেই ওই মন্দিরে। ভেতরের শিলান্যাসে রয়েছে তেজপ্রতাপ, ভাই তেজস্বী ও মা রাবড়ি দেবীর নাম।

তেজপ্রতাপের এই অবৈধ নির্মাণ সম্পর্কে পুরোপুরি ওয়াকিবহাল বিহার সরকার। তবে সম্ভবত মন্দির হওয়ার কারণেই চুপ রয়েছেন তারা। পথনির্মাণ মন্ত্রী নন্দকিশোর যাদব দোষ দিয়েছেন আবাস নির্মাণ বিভাগের ঘাড়ে। আবাস নির্মাণ বিভাগের মন্ত্রীর দাবি, বিষয়টি তাঁর অজানা ছিল। কমিটি তৈরি করে তদন্ত করাবেন তিনি।

আরজেডির দাবি, মন্দির ওই জায়গায় আগে থেকেই ছিল, তেজপ্রতাপ শুধু তার সৌন্দর্যায়ন করাচ্ছেন।