বাংলা অনূর্ধ্ব-২৩ দলের কোচ লক্ষ্মী

নিজস্ব প্রতিনিধি, কলকাতা : দীর্ঘ বৈঠক। সন্ধ্যা সাড়ে সাতটায় শুরু হয়ে বৈঠক শেষ হয় রাত দেড়টায়!

বেহালার বীরেন রায় রোডে বোর্ড সভাপতি সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ে বাড়িতে দীর্ঘসময় ধরে চলা বৈঠক শেষে বাংলার কোচ নির্বাচন নিয়ে জট কাটল। বাংলা সিনিয়র দলের কোচের দায়িত্বে প্রত্যাশিতভাবেই থেকে গেলেন অরুণ লাল। তাঁর সহকারি হলেন প্রাক্তন ক্রিকেটার সৌরাশিস লাহিড়ি। দলের বোলিং কোচের দায়িত্ব পেলেন শিবশংকর পাল। স্পিন উপদেষ্টার দায়িত্বে থেকে গেলেন উৎপল চট্টোপাধ্যায়। বহু জল্পনার পর ভিভিএস লক্ষ্মণও থেকে গেলেন তাঁর দায়িত্বে। সিনিয়র দলের কোচ ও সাপোর্ট স্টাফ নির্বাচন প্রত্যাশিত।

- Advertisement -

চমক বাংলা অনূর্ধ্ব-২৩ দলে। যেখানে অপ্রত্যাশিতভাবে কোচের দায়িত্ব পেলেন প্রাক্তন বাংলা অধিনায়ক তথা রাজ্যের প্রাক্তন ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা। ক্রিকেট থেকে অবসর নিয়ে রাজনীতিতে গিয়েছিলেন লক্ষ্মী। হয়েছিলেন মন্ত্রীও। যদিও পরবর্তী সময়ে তিনি প্রত্যক্ষ রাজনীতি থেকে সরে দাঁড়ান। নয়া ভূমিকায় মাঠে কামব্যাক নিয়ে বঙ্গ ক্রিকেটের এলআর আজ কোনও মন্তব্য করতে চাননি। সিএবি সূত্রের খবর, লক্ষ্মীকে কোচ করে বঙ্গ ক্রিকেটের রাজনীতি ও ক্রিকেট প্রশাসনকে ভিন্ন মাত্রা দিলেন বর্তমান শীর্ষ কর্তারা। বাংলার অনূর্ধ্ব-১৯ দলের কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন দেবাং গান্ধি। আর সিনিয়র মহিলা দলের কোচ হলেন ঋতুপর্ণা রায়।

জাতীয় দলের প্রাক্তন ক্রিকেটার ওয়াসিম জাফর বাংলার কোচ হতে পারেন। গত কয়েকদিন ধরে বঙ্গ ক্রিকেটে এব্যাপারে কম জল্পনা ও আলোচনা হয়নি। গতরাতের দীর্ঘ বৈঠক শেষে জাফরের কোচ হওয়ার সম্ভাবনা শেষ হয়ে যায়। আর নতুন চমক হিসেবে সামনে চলে আসে লক্ষ্মীর নাম। দল নিয়ে খুব দ্রুত কাজ শুরু করতে চান তিনি।