ফক্সের ডেরায় দুরন্ত জয় চেলসির

লেস্টার সিটি – ০

চেলসি – ৩ (রুডিগার, কন্তে, পুলিসিচ)

- Advertisement -

লেস্টার : ওল্ড ট্র‌্যাফোর্ডে আসন টলমল ওলে গানার সোলসায়ারের। তাঁর জায়গায় প্রবলভাবে ভাসছে যে নাম, সেটি ব্রেন্ডন রজার্সের।

প্রাক্তন লিভারপুল প্রশিক্ষক রেড ডেভিলসের কোচ হবেন কি না তা সময় বলবে। তবে লেস্টার কোচ হিসেবে চলতি মরশুমে তাঁর যা পারফরমেন্স তাতে কতদিন তিনি ফক্সের ডেরায় টিকতে পারেন তা নিয়ে উঠতে শুরু করেছে প্রশ্ন। শনিবার ঘরের মাঠে চেলসির কাছে ০-৩ গোলে ধরাশায়ী হয়ে সেই প্রশ্ন আরও জোরালো হল।

লিগ টেবিলের এক বনাম বারোর লড়াই হলেও চেলসি-লেস্টার ম্যাচকে ঘিরে দুদলের সমর্থকদের মধ্যে পারদ চড়ছিল। গত মরশুমে রজার্সের লেস্টারের কাছে দুইবার ধরাশায়ী হয়েছিল ব্লুজ। শনিবার জেমি ভার্ডিদের কাছে সুযোগ ছিল জয়ের হ্যাটট্রিকের। কিন্তু কিং পাওয়ার স্টেডিয়ামে চেলসি-ঝড়ের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ বিধ্বস্ত ফক্সবাহিনী।

শুরুর ১৪ মিনিটের মাথায় চেলসিকে এগিয়ে দিয়েছিলেন অ্যান্থনি রুডিগার। লেস্টার মানেই যেন গোলের গন্ধ পান রুডিগার। কেরিয়ারে ৮ গোলের চারটি ফক্সের বিরুদ্ধে। চলতি মরশুমে ১২টি গোল করেছেন চেলসির ডিফেন্ডাররা, এটাও কম তাৎপর‌্যপূর্ণ নয়। প্রথমার্ধে শুধু রুডিগার নয়, গোলের দেখা পেলেন এনগোলো কন্তেও। ২৮ মিনিটে নিজের পুরোনো দলের জালে বল জড়ালেন এই ফরাসি মিডিও। দ্বিতীয়ার্ধে পরিবর্ত হিসেবে নেমে ব্যবধান বাড়ান ক্রিশ্চিয়ান পুলিসিচ।

লেস্টারের বিরুদ্ধে অবশ্য ৩-০ নয়, হাফডজন গোলে জিততে পারত ব্লুজ ব্রিগেড। ম্যাচে তিনটি গোল বাতিল হল অফসাইডে। যারমধ্যে দুটি চেলসির। লেস্টারকে হারিয়ে ১২ ম্যাচে ২৯ পয়েন্টে পৌঁছে গেল টমাস টুচেলের দল। ম্যাঞ্চেস্টার সিটি, লিভারপুলের মতো হেভিওয়েকে পিছনে ফেলে লিগ টেবিলের শীর্ষে এখন জর্জিনহোরা।