আসন রফা চূড়ান্ত হলেও প্রকাশ্যে আনতে নারাজ বাম-কংগ্রেস নেতারা

172

কলকাতা: আসন রফা চূড়ান্ত হয়ে গেলেও এই মুহূর্তে তা প্রকাশ করতে নারাজ বাম-কংগ্রেস নেতারা। মঙ্গলবার বাম ও কংগ্রেসের মধ্যে দীর্ঘক্ষণ বৈঠক হয়। তা শেষে যৌথ সাংবাদিক বৈঠক করেন বামফ্রন্ট চেয়ারম্যান বিমান বসু ও প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীররঞ্জন চৌধুরী।

তাঁরা জানান, হুগলির ফুরফুরা শরীফের পীরজাদা আব্বাস সিদ্দিকীর নবগঠিত দল ইন্ডিয়ান সেকুলার ফ্রন্ট, আরজেডি সহ বেশকিছু দল তাঁদের জোটে শামিল হতে চায়। জোট রাজনীতির স্বার্থেই এই মুহূর্তে তাঁরা আসন সমঝোতার বিষয়টি প্রকাশ্যে আনছেন না।

- Advertisement -

এদিন অধীরবাবু জানান, কারা কটি আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন তা যদি এই মুহূর্তে জানিয়ে দেওয়া হয়, তাহলে যেসব রাজনৈতিক দল জোটে সামিল হতে চাইছে তাদের কাছে ভুল বার্তা যাবে। সেকারণেই জোট প্রক্রিয়া পুরোপুরি সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত তাঁরা ওই বিষয়টি প্রকাশ্যে আনতে চাইছেন না। জোট প্রক্রিয়া মিটে গেলেই তাঁরা বিষয়টি প্রকাশ্যে আনবেন।

এছাড়া এদিনের আলোচনায় আগামী ২৮ ফেব্রুয়ারির ব্রিগেড সমাবেশ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। উভয়দলের তরফে ব্রিগেড সমাবেশকে সফল করার প্রয়াস চালানো হবে বলে ঠিক করা হয়েছে। বাম-কংগ্রেসের নেতাদের দাবি, তাঁদের জোট শক্তিতে ভয় পেয়েছে রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল। সেকারণে তৃণমূল বাম ও কংগ্রেসের নেতা-কর্মীদের ওপর আক্রমণ করছে।

তবে এদিন বাম ও কংগ্রেসের তরফে আসন সমঝোতার বিষয়ে পরিষ্কার করে কিছু জানোনা না হলেও বিশ্বস্ত সূত্রে জানা গিয়েছে, ১১০টির মতো আসন কংগ্রেসকে ছেড়ে দিচ্ছে বামফ্রন্ট।

এদিন ওই যৌথ সাংবাদিক বৈঠকে বলা হয়েছে, ২৮ ফেব্রুয়ারি বাম-কংগ্রেস জোটের তরফে যে ব্রিগেড সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছে তাতে আব্বাস সিদ্দিকীর সেকুলার ফ্রন্টও যোগ দেবে। যদিও এদিন সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে সেকুলার ফ্রন্টের প্রতিষ্ঠাতা আব্বাস সিদ্দিকী সাফ জানিয়ে দেন, আসন সমঝোতা সম্পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত তিনি যৌথভাবে কোনও দলের কোনও সমাবেশে যোগ দেবেন না।