এই অভিযোগে একসুর বাম-বিজেপি-তৃণমূলের

119

ডালখোলা: ভেজাল মদ কারবারিদের মুক্তাঞ্চল হয়ে উঠেছে ডালখোলা শহর। পুরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডে ব্যাঙয়ের ছাতার মতো গজিয়ে উঠেছে মদ তৈরির কারখানা। এমনটাই অভিযোগ এলাকার নেতা থেকে শুরু করে ব্যবসায়ী তথা সাধারণ মানুষের। ডালখোলা পুরসভার বোর্ড অফ অ্যাডমিনিস্ট্রেটরের চেয়ারপার্সন সুভাষ গোস্বামী জানান, প্রতিবেশী রাজ্য বিহারে মদ নিষিদ্ধ হওয়ার পর থেকে জাল মদ তৈরির একটি চক্র সক্রিয় হয়ে উঠেছে। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন এলাকায় পুলিশ তল্লাশি চালিয়ে জাল মদ উদ্ধার করলেও বেশিরভাগ সময়েই কাউকে গ্রেপ্তার করা যাচ্ছে না। যে কারণেই এই চক্রের রমরমাও নিয়ন্ত্রণ করা যাচ্ছে না। প্রশাসনকে এই বিষয়ে কড়া পদক্ষেপ করতে বলা হয়েছে বলে জানান সুভাষবাবু। এদিকে আবগারি দপ্তরের ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন ডালখোলা শহর তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি রাকেশ সরকার। তিনি জানান, জাল মদের কারবার রুখতে পুলিশ ও আবগারি দপ্তরে লিখিত আবেদন জানানো হয়েছে। অবিলম্বে মদ কারবারিদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ না করা হলে বৃহত্তর আন্দোলনে যেতে বাধ্য হবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। ডালখোলার সিপিআইএম নেতা সুজিত দে সরকার ও বিজেপির ট্রেডার্স সেলের জেলা নেতা দুর্গাপ্রসাদ জৈনও বিষয়টি নিয়ে সরব হয়েছেন। যদিও বিষয়টি নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে পুলিশ।