৯ দফা দাবিতে বামপন্থী সংগঠনের ডেপুটেশন

384

গাজোল: দিল্লিতে আন্দোলনরত কৃষকদের সমর্থনে পথে নামল গাজোলের বামপন্থী কৃষক এবং ক্ষেতমজুর সংগঠন। একই সঙ্গে স্থানীয় কৃষকদের বেশকিছু দাবি-দাওয়া নিয়ে শুক্রবার গাজোল ব্লকসহ কৃষি অধিকর্তার দপ্তরে ডেপুটেশন প্রদান করা হল। এদিনের কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দেন বাম নেতা মোশারফ হোসেন, মন্ডল মুর্মু, অরুণ বিশ্বাস, প্রণব চৌধুরী, আনিসুর রহমান, প্রাক্তন বিধায়ক সাধু টুডু প্রমুখ। ডেপুটেশন প্রদানের আগে দিল্লির আন্দোলনরত কৃষকদের সমর্থনে মিছিল করে এবং ক্ষেতমজুর সংগঠনের নেতাকর্মীরা। পরে গাজোল ব্লকসহ কৃষি অধিকর্তার দপ্তরে ৯ দফা দাবি নিয়ে ডেপুটেশন প্রদান করে।

সারা ভারত কৃষক সভার গাজোল ব্লক সম্পাদক মন্ডল মুর্মু বলেন, ‘কৃষক আন্দোলনে আজকে সারা ভারত উত্তাল। দিল্লিতে আন্দোলনরত কৃষকদের আমরা সমর্থন জানাচ্ছি তারই সাথে স্থানীয় কৃষকদের বেশকিছু দাবি-দাওয়া নিয়ে এদিন আমরা কৃষি দপ্তরে ডেপুটেশন প্রদান করছি। আমাদের মূল দাবি অবিলম্বে সর্বনাশা কৃষি আইন বাতিল করতে হবে। চাষীদের সুবিধার জন্য অবিলম্বে সরকারি সহায়ক মূল্যে ধান কেনার শিবির চালু করতে হবে। ধানের দাম নগদ প্রদান করতে হবে।‘

- Advertisement -

এদিন তিনি আরও বলেন, ‘বর্তমানে আলু বীজ এবং সারের দামে ব্যাপক হারে কালোবাজারি চলছে। আলুর বীজ এর প্রতিটি বস্তার দাম নেওয়া হচ্ছে ৬ হাজার টাকা। বিভিন্ন সার কিনতে গিয়ে হয়রান হতে হচ্ছে কৃষকদের। গোটা গাজোল জুড়ে চলছে সারের কালোবাজারি। সারের বস্তায় যে দাম লেখা থাকছে তার থেকে অনেক বেশি টাকা নেওয়া হচ্ছে কৃষকদের কাছ থেকে। এর বিরুদ্ধে অবিলম্বে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে প্রশাসনকে। এছাড়াও আমরা দাবি জানাচ্ছি ১০০ দিনের কাজ প্রকল্পে কৃষিকাজ কে অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।‘

গাজোলের সহ কৃষি অধিকর্তার বিক্রান্ত সাহা জানান সংগঠনের পক্ষ থেকে ৮ দফা দাবি নিয়ে একটি স্মারকলিপি দেওয়া হয়েছে এই বিষয় নিয়ে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে জানাবো যাতে কৃষকরা উপকৃত হয়।