লোকালয় থেকে উদ্ধার শাবক সহ মা চিতাবাঘ

168

গয়েরকাটা: লোকালয় থেকে উদ্ধার হল শাবক সহ মা চিতাবাঘ। মঙ্গলবার ভোরে গয়েরকাটা লাগোয়া দুরামারি এলাকায় ওই দুটি চিতাবাঘকে দেখতে পান স্থানীয় বাসিন্দারা।

কিন্তু তারপরেই সামনে আসে বন্যপ্রাণী নির্যাতনের ছবি। তাদের মধ্যে একটি চিতাবাঘকে এলাকার কয়েকজন মিলে দড়ি দিয়ে বেঁধে বাঁশে আটকে রাখেন। অপরটি পালিয়ে লুকিয়ে যায় ভুট্টা খেতে। সেই খবর চাউর হতেই গ্ৰামবাসীরা বাঘ দেখতে ভিড় জমান। পরে বনদপ্তরের কর্মীরা এসে চিতাবাঘটিকে উদ্ধার করে লাটাগুড়ি প্রকৃতি পর্যবেক্ষণ কেন্দ্রে নিয়ে যায়। লুকিয়ে থাকা বাঘটিকেও উদ্ধার করেছে বনকর্মীরা। ভিড় নিয়ন্ত্রণে আনতে ঘটনাস্থল ঘিরে রাখেন বনকর্মী ও বানারহাট থানার পুলিশ। এমনকি ঐ এলাকায় এসএসবি নামিয়ে ১৪৪ ধারা জারি করার চিন্তা ভাবনা করেছে বনদপ্তর।

- Advertisement -

কিন্তু বাঘটিকে বেঁধে রেখে নির্যাতনের ঘটনায় হতবাক পরিবেশপ্রেমীরা। কিছুদিন আগেই নাগড়াকাটায় একটি মৃত বাঘের লোম, দাঁড়ি উপড়ে নেওয়ার ঘটনা সামনে এসেছিল। গ্ৰামবাসীদের বারবার সচেতন করার পরেও বন্যপ্রাণীর সঙ্গে এরকম ঘটনায় উদ্বিগ্ন পরিবেশপ্রেমীরা।

ওদলাবাড়ির পরিবেশপ্রেমী সংস্থা ন্যাসের কর্মকর্তা নফসর আলি জানান,এইভাবে বন্যপ্রাণী আইন নিজের হাতে তুলে নেওয়া উচিত নয়। যেভাবে চিতাবাঘেকে দড়ি দিয়ে বেঁধে টেনে হিচড়ে নিয়ে যাওয়া হয়, তা পুরোপুরি বেআইনি। বড়সর দুর্ঘটনা ঘটে যেতে পারত। বনদপ্তরের উচিত ব্যবস্থা গ্রহণ করা। মানুষকে আরও সচেতন হতে হবে।

জলপাইগুড়ি অনারারি ওয়াইল্ডলাইফ ওয়ার্ডেন সীমা চৌধুরী জানান,গ্রামবাসীদের আটকে রাখা একটি চিতাবাঘ সহ ২টি বাঘকে উদ্ধার করা হয়েছে। তাদের পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থলে মোতায়েত রয়েছেন বনকর্মীরা।