বেসরকারিকরণের প্রতিবাদে জীবন বীমায় ধর্মঘট

165

মালবাজার: বিভাগীয় বীমা কর্মচারি সমিতি সহ বিভিন্ন সংগঠনের আহ্বানে মাল শহরের জীবন বীমা নিগম কার্যালয়ে ধর্মঘট হল। বৃহস্পতিবার ওই আন্দোলনে রাষ্ট্রায়ত্ত শিল্প, ব্যাংক, বীমাসহ সরকারি আর্থিক প্রতিষ্ঠান ও দেশের সম্পদ বেসরকারিকরণের জোরালো প্রতিবাদ করা হয়। অভিযোগ, কেন্দ্রীয় বাজেটে জীবন বীমা নিগমের সম্পদ ইনিশিয়াল পাবলিক অফারের মাধ্যমে শেয়ার বাজারের নথিভূক্ত করা হবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে। পাশাপাশি, বাজেটে দেশের বিভিন্ন রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বিক্রির জন্য যুদ্ধকালীন তৎপরতায় ঘোষণা করা হয়েছে।

সংগঠনের তরফে অভিযোগ, এই প্রথম নজিরবিহীনভাবে কোনও বাজেটে সাধারণ মানুষের বীমা সংস্থাকে সরাসরি বেসরকারিকরণের প্রকাশ্য ঘোষণা করা হল। ভারতবর্ষের প্রতিটি প্রান্তেই নাগরিকদের জীবনের উপর সরকারি জীবন বীমার সুরক্ষা প্রদানকারী সংস্থা হল জীবন বীমা নিগম। নিগমের সম্পদকে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত করা হয়েছে। ভবিষ্যতেও এই বৃহৎ এবং অত্যন্ত সফল রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থাকে বেসরকারিকরণের পরিকল্পনা চূড়ান্ত করা হয়েছে। এরই প্রতিবাদে আন্দোলন কর্মসূচি চলছে। দেশের দুটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংক বিক্রি করে দেওয়ার প্রতিবাদে ১৫ এবং ১৬ই মার্চ দেশব্যাপী ৪৮ ঘণ্টার ব্যাংক ধর্মঘট করা হয়েছে। একটি সাধারণ বীমা সংস্থা বিক্রির প্রতিবাদে সাধারণ বীমা সংস্থায় ১৭ই মার্চ ধর্মঘট হয়েছে। এবার জীবন বীমা নিগমের কার্যালয়গুলোতে আজকে ধর্মঘট করা হল। সংগঠনের তরফে অরূপ দাস, ধ্রুবজ্যোতি দত্ত, সনৎ দাস, সুবীর মিত্র, সৌভিক সরকার প্রমূখ আন্দোলন কর্মসূচিতে নেতৃত্ব দিয়েছেন।

- Advertisement -

আন্দোলনকারীরা বলেন, ‘ভারতবর্ষের গর্ব জীবন বীমা নিগম। জীবন বীমা নিগমের সম্পদের শেয়ার বিক্রি কেন্দ্রীয় সরকারি ঘোষণায় লক্ষাধিক আধিকারিক, কর্মচারি, শ্রমিক সহ ১৩ লক্ষ এজেন্ট এবং ৪০ কোটি পলিসি হোল্ডারদের মধ্যে ক্ষোভ ছড়িয়েছে। সাধারণ পলিসি হোল্ডারদের সঞ্চয় পুষ্ট সন্তুষ্ট জীবন বীমা নিগমের সম্পত্তির পরিমাণ ৩২ লক্ষ কোটি টাকা। জীবন বীমা নিগমের প্রকৃত মালিক সাধারণ পলিসি হোল্ডার ও দেশের জনগণ। ধর্মঘটের মাধ্যমে এই সম্পদকে সুরক্ষার আহ্বান করা হয়। এদিন কেন্দ্রীয় সরকারের বেসরকারিকরণ নীতির প্রতিবাদে মালবাজারে জীবন বীমা নিগম কার্যালয়ের সামনে আন্দোলনকারীরা তুমুল স্লোগানও দেন।’