নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে উচ্চ বাতিস্তম্ভ নির্মাণের অভিযোগ

158

চাঁচল: নির্মাণের কয়েক মাসের মধ্যে বিকল উচ্চ বাতিস্তম্ভ। এদিকে নিম্নমানের সামগ্রী দিয়ে উচ্চ বাতিস্তম্ভ তৈরির অভিযোগ তুলে প্রধানের বিরুদ্ধে প্রশাসনের দ্বারস্থ হয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। চাঁচল-১ ব্লকের খরবা গ্রাম পঞ্চায়েতের ঘটনা। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন প্রধান।

জানা গিয়েছে, ওই এলাকায় দুটি উচ্চ বাতিস্তম্ভ খরবা গ্রাম পঞ্চায়েতের উদ্যোগে তৈরি করা হয়। গত মার্চ মাসে বাতি দুটি নির্মিত হয়। এরপর কয়েক মাস চলে তা বিকল হয়ে যায়। এখনও অবধি তা ঠিক করা হয়নি। এই বিষয়ে বারবার প্রধান পারভিনা খাতুনকে বলার পরও সেগুলি সারানো হয়নি। প্রধান এই বিষয়ে কর্ণপাত করেননি বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর। তাঁদের আরও অভিযোগ, উচ্চ বাতিস্তম্ভগুলিতে একেবারে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার করা হয়েছে। তাই কিছুদিন চলার পর তা বিকল হয়ে পড়েছে। এই নিয়ে সম্প্রতি, খরবা গ্রাম পঞ্চায়েতের বাসিন্দাদের একাংশ লিখিতভাবে চাঁচল-১-এর বিডিও ও চাঁচল এসডিও’র কাছে অভিযোগপত্র জমা দেন। তাঁদের দাবি, শীঘ্রই উচ্চ বাতিস্তম্ভগুলি সারানো হোক। প্রকল্প দুটি নির্মাণে কত টাকা খরচ হয়েছে তাও প্রকাশ করা হোক। প্রধানের বিরুদ্ধে তদন্ত সাপেক্ষে পদক্ষেপ করার দাবি জানিয়েছেন স্থানীয় বাসিন্দারা। খরবা গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান পারভিনা খাতুন নিজের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করে জানান, শীঘ্রই বাতিগুলি সারানো হবে। চাঁচল-১-এর বিডিও সমীরণ ভট্টাচার্য জানান, ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে প্রধানের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

- Advertisement -