লোকাল ট্রেন চালু নিয়ে কাল নবান্নে বৈঠক

266

কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গে লোকাল ট্রেন চালু নিয়ে আগামিকাল রাজ্য সরকারের সঙ্গে বৈঠকে বসবে ভারতীয় রেল। সূত্রের খবর, সোমবার বিকেল ৫টায় নবান্নে এই বৈঠক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। জানা গিয়েছে, ওই বৈঠকে পূর্ব রেলের অতিরিক্ত জেনারেল ম্যানেজার, চিফ অপারেশন ম্যানেজার ও চিফ সিকিউরিটি কমিশনার উপস্থিত থাকবেন। লোকাল ট্রেন চালুর জন্য শনিবারই রাজ্য সরকার চিঠি দেয় রেলকে।

শনিবার রাতে পূর্ব রেলের জেনারেল ম্যানেজার সুনীত শর্মাকে রাজ্য সরকারের তরফে চিঠি পাঠিয়েছিলেন অতিরিক্ত মুখ্য সচিব এইচকে দ্বিবেদী। এর আগে পুজোর মধ্যেই রাজ্যে লোকাল ট্রেন চালু করতে চেয়েছিল রেল কর্তৃপক্ষ। কিন্তু আনলক পর্বে ট্রেন চালানোয় রাজি ছিল না রাজ্য সরকার।

- Advertisement -

রেলকে পাঠানো চিঠিতে রাজ্য বিভিন্ন রুটে কয়েকটি লোকাল ট্রেন চালানো নিয়ে দ্রুত বৈঠকে বসার ইচ্ছে প্রকাশ করেছিল। সকাল ও বিকেলের ব্যস্ত সময়ে সাধারণ যাত্রীদের সুবিধার্থে কয়েকটি লোকাল ট্রেন চালানো যেতে পারে বলে জানানো হয়েছে। এদিকে চিঠিতে রাজ্যের তরফ বলা হয়েছে, যাত্রীদের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে ট্রেন চালু করা হোক। একই সঙ্গে বলা হয়, শুধুমাত্র রেলকর্মীদের জন্য ট্রেন চলছে। কিন্তু অন্যান্য সরকারি কর্মচারী এবং সমাজের বিভিন্ন স্তরের মানুষ পরিষেবা থেকে বঞ্চিত থাকছে। রাজ্যে গণপরিবহণের ক্ষেত্রে অন্যান্য মাধ্যম চালু হয়ে গিয়েছে। বিমান পরিষেবাও চালু হয়ে গিয়েছে।

উল্লেখ্য, আনলক পর্বে রাজ্যে শুধুমাত্র রেলকর্মীদের জন্যই বিশেষ ট্রেন চালানো হচ্ছে। সেই ট্রেনে সাধারণ যাত্রীদের ওঠার চেষ্টা নিয়ে বারবার অশান্তিকর পরিস্থিতি তৈরি হচ্ছে। রেলের স্টাফ স্পেশ্যাল ট্রেনে ওঠা নিয়ে প্রায়ই ঝামেলা লেগে থাকছে বিভিন্ন স্টেশনে। শনিবার হাওড়া স্টেশনে স্পেশ্যাল ট্রেনে ওঠা নিয়ে যাত্রীদের সঙ্গে রেলপুলিশের ধুন্ধুমার কাণ্ড বাধে। রেলপুলিশের বিরুদ্ধে লাঠিচার্জের অভিযোগও ওঠে। শনিবারের ওই ঘটনার প্রেক্ষিতেই রাজ্য সরকার লোকাল ট্রেন চালু করার বিষয়ে রেলকে চিঠি দেয়। চিঠিতে হাওড়া স্টেশনে যাত্রীদের উপর রেলপুলিশের লাঠিচার্জ এবং সামগ্রিক ভাবে রেলপুলিশের ব্যবহার নিয়েও অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়েছে। করোনার আবহে স্বাস্থ্যবিধি মেনে লোকাল ট্রেন চালাতে হবে। তবেই রাজ্য ট্রেন চালু করার অনুমতি দেবে।