বেহাল রাস্তা ঘিরে বিক্ষোভ স্থানীয়দের, ভোট বয়কটের হুমকি

299

দেবাশিষ দত্ত, পারডুবি: মাথাভাঙ্গা-২ ব্লকের পারডুবি গ্রাম পঞ্চায়েতের খাটেরবাড়ি এলাকায় বেহাল রাস্তা দীর্ঘদিন ধরে সংস্কারের দাবি জানিয়েও পুরণ না হওয়ায় রবিবার রাস্তায় ধানের চারা লাগিয়ে বিক্ষোভ দেখালেন স্থানীয়রা। অভিযোগ প্রায় ২০-২৫ বছর ধরে খাটের বাড়ি এলাকায় প্রায় তিন চার কিলোমিটার জুড়ে  রাস্তা বেহাল। স্থানীয় প্রশাসনের তরফে কোন বছরে মাটি ফেললেও বর্ষায় বেহাল হয়ে চলার অযোগ্য হয়ে পড়ে। কাদা জমে থাকায় রাস্তা দিয়ে চলাচলে করা যায় না। এই রাস্তা দিয়ে স্থানীয় কৃষকরা তাদের ফসল পারডুবি সহ ব্লকের বিভিন্ন বাজারে নিয়ে যান।

পাশাপাশি এলাকার বেশকিছু বাসিন্দারা জানান, এই রাস্তা দিয়ে খাটেরবাড়ি এলাকায় রেল ব্রিজ দিয়ে মাথাভাঙ্গাতেও যাতায়াত করেন। বর্ষায় জল কাদা জমে রাস্তা বেহাল হয়ে পড়ায় চরম সমস্যায় পড়েছেন এলাকার বাসিন্দারা। পাশে থাকা মানসাই নদীর জল বাড়লে এলাকায় জল ঢুকে পড়ে জলমগ্ন হয়ে পড়ে, অভিযোগ স্থানীয়দের। স্থানীয়রা জানান, বর্ষাকাল এলেই রাস্তার ভোগান্তি দ্বিগুণ বেড়ে যায়। এ সময় এ রাস্তা দিয়ে চলতে গেলে হাঁটু পর্যন্ত কাদার ভেতর ডুবে যায়। তাই এদিন এলাকায় ধানের চারাগাছ পুতে কার্লভার্ট ও গ্রাভেল রাস্তার দাবি জানিয়ে প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন স্থানীয়রা।

- Advertisement -

স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, রাস্তাটি গ্রাভেল করে এলাকায় কার্লভার্ট বসানোর দাবি দীর্ঘদিন ধরে করে আসছি, আজ পর্যন্ত দাবি পূরণ হয়নি। রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে খুবই অসুবিধা হয়। জমিতে উৎপন্ন ফসল নিয়ে যেতে সমস্যায় পড়েছেন স্থানীয়রা। তাই আজ আমরা এলাকার পুরুষ মহিলা সহ স্কুল পড়ুয়ারা মিলে ধানের চারা লাগিয়ে বিক্ষোভ দেখালাম সংস্কারের দাবি জানিয়ে। স্থানীয়দের অভিযোগ ভোট এলেই সকলে খোঁজ নেয় এলাকায়, রাস্তা সংস্কারের প্রতিশ্রুতি মিলে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের জনপ্রতিনিধিদের থেকে। রাস্তা সংস্কার না হলে ভোট বয়কটের সিদ্ধান্তও নিয়েছেন বলে স্থানীয়রা জানান।

অপর এক বাসিন্দা বিবেকানন্দ বিশ্বাস জানান প্রায় এক হাজার মানুষের সম্বল গ্রামের ওই রাস্তা। বর্ষা আসতেই তা চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে প্রত্যেক বছর। রাস্তা দিয়ে স্থানীয়রা সহ কৃষকরা ট্রলিতে করে ফসল বিক্রির জন্য অনবরত চলাচল করে। বর্ষায় জল কাদা জমে থাকা রাস্তার উপর দিয়ে স্কুল পড়ুয়ারাও চলাচলে সমস্যায় পড়েন। গামছা নিয়ে এসে স্কুল পড়ুয়ারা জল কাদা পেড়িয়ে পোশাক বদলে এই পথ দিয়ে স্কুল পড়ুয়াদের যাতয়াত করতে হয় বলেও অভিযোগ স্থানীয় অভিভাবকদের। দীর্ঘদিন ধরে বেহাল থাকায় দুর্ভোগে পড়েছেন এলাকার বহু মানুষ।

সেই বাম আমল থেকে তারা দাবি জানিয়েছেন রাস্তাটি গ্রাভেল করে পাঁকা কার্লভার্ট তৈরি করা হোউক। একাধিকবার স্থানীয় পঞ্চায়েত প্রধানের দ্বারস্থ হয়ে লিখিত আবেদন জানেলেও কাজ হয়নি বলে অভিযোগ। এলাকার পড়ুয়াদের স্কুল কলেজে যাওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। অসুস্থ মানুষকে হাসপাতালে নিয়ে যেতে পড়তে হয় বিপাকে। বছরের পর বছর একই অবস্থা। পঞ্চায়েতে বলে কোনও কাজ না হওয়ায় বাধ্য হয়ে রাস্তায় ধান চাষ করে অভিনব প্রতিবাদ জানিয়েছেন গ্রামবাসী। এভাবেই দীর্ঘ দিনের ক্ষোভ উগরে দিলেন স্থানীয়রা।

এ বিষয়ে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য শ্যামল মন্ডল বলেন খাটের বাড়ি এলাকায় বেশ কয়েকটি রাস্তার অবস্থা খুবই খারাপ রয়েছে। এ বিষয়ে স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত কর্তৃপক্ষকে জানিয়ে প্ল্যান জমা করা হয়েছে। সেখান থেকে বলা হয় টাকা এলেই সংস্কারে উদ্যোগ নেওয়া  হবে। কবে হবে সেবিষয়ে জানা নেই। এবিষয়ে সংশ্লিষ্ট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান অশোক বর্মন বলেন বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে। আগামী আর্থিক বছরে গ্রাম পঞ্চায়েতের খাতে টাকা এলে রাস্তাটি সংস্কার ও কার্লভার্ট তৈরির বিষয়ে উদ্যোগ নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।