করোনা ঠেকাতে পূর্ণাঙ্গ লকডাউনের পথে মালদা জেলা

1047

মালদা: অবশেষে টনক নড়ল প্রশাসনের। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে কড়া পদক্ষেপ করল জেলা প্রশাসন। এবার পুরোপুরি লকডাউনের পথে গোটা জেলা। সোমবার জেলা প্রশাসনের এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আগামী বুধবার থেকে আপাতত সাতদিনের জন্য পুরোপুরি লকডাউনের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সংক্রমণ না কমলে পরে এই লকডাউনের সময়সীমা বাড়ানো হতে পারে বলেও জানিয়েছে জেলা প্রশাসন। লকডাউনের অনুমোদন এদিন নবান্নে পাঠানো হয়েছে। রাজ্য সরকারের অনুমতি পেলেই এই সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে বলে জানা গিয়েছে।

- Advertisement -

প্রতিনিয়ত মালদা জেলায় বেড়ে চলেছে করোনা সংক্রমণ। জেলায় করোনা সংক্রমণের শিকার হয়েছেন থানার আইসি, পঞ্চায়েত প্রধান, জেলা পরিষদের সদস্য সমেত ৩৬ জন। জেলায় সংক্রমণের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ৮০০।
মালদা মেডিকেল কলেজের ভিআরডিএল থেকে সোমবার মালদা জেলায় যে ৩৬ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে, তারমধ্যে সবচেয়ে বেশি সংক্রামিত রয়েছেন ইংরেজবাজার ব্লকে। এখানে পুর এলাকায় ৮ জন ও গ্রামীণ এলাকায় ৩ জন সংক্রামিত হয়েছেন। ইংরেজবাজার পুরসভার ৪, ৫, ১৪, ১৭, ২১, ২৪, ২৫ ও ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে একজন করে সংক্রামিত হয়েছেন। ইংরেজবাজার ব্লকের মহদিপুর, কাজিগ্রাম ও নরহাট্টা গ্রাম পঞ্চায়েতে একজন করে সংক্রামিত হয়েছেন। নরহাট্টায় গ্রাম পঞ্চায়েত প্রধান সংক্রামিত হয়েছেন।

কালিয়াচক ১ নম্বর ব্লকে ৬ জন সংক্রামিতের মধ্যে ওই পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি রয়েছেন। সংক্রামিত হয়েছেন কালিয়াচক থানার আইসি সমেত দু’জন পুলিশকর্মী। মানিকচক ব্লকেও ৬ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। এর মধ্যে ওই ব্লকের নূরপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান রয়েছেন বলে প্রাথমিক ভাবে জানা গেছে। কালিয়াচক ২ নম্বর ব্লকের সংক্রামিতের সংখ্যা ৫। কালিয়াচক ৩ নম্বর ব্লকে একজনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। পুরাতন মালদায় মোট চারজন সংক্রামিতের মধ্যে দু’জন পুর এলাকার এবং দু’জন সাহাপুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার। সব মিলিয়ে মালদা জেলায় মোট করোনা সংক্রামিতের সংখ্যা দাঁড়াল ৮১৮। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৪৩৪ জন।