লকডাউনের আবহে ডিম পাড়তে আট লক্ষাধিক কচ্ছপ সমুদ্র সৈকতে

497

ভুবনেশ্বর: করোনার ভাইরাসের হুমকির মোকাবিলায় সারাদেশে ২১ দিনের লকডাউন চলছে৷ এই অবরুদ্ধ জনজীবনের মধ্যে কোন বাধা না পেয়ে বিপুল সংখ্যক প্রাণী লোকালয়ে ঢুকে পড়ছে৷ তারই এক নজিরবিহীন দৃশ্য ধরা পড়েছে ওডিশা উপকূলে৷ এই সমুদ্র সৈকতে প্রায় লক্ষ কচ্ছপ ডিম পাড়তে জল থেকে ডাঙায় উঠে এসেছে৷

একটি ইংরেজি দৈনিক সংবাদমাধ্যমের প্রতিবেদন অনুযায়ী, এই কচ্ছপগুলি রসিকুলিয়ায় প্রায় ৬ কোটি ডিম পাড়ে। করোনার ভাইরাসের পরিপ্রেক্ষিতে দেশে ঘরবন্দি হওয়ার পরে জেলে এবং পর্যটকদের তৎপরতা সৈকতে বন্ধ হয়ে গিয়েছে৷ যার ফলে প্রচুর কচ্ছপ সৈকতে এসে হাজির হয়েছে। কিছু বিশেষজ্ঞ বলছেন, মানুষের আনাগোনা বন্ধ হওয়ার কারণে এই কচ্ছপগুলি ডিম পাড়তে সমুদ্র সৈকতে পৌঁছেছে। এই কচ্ছপ গত পাঁচ দিনে এখানে জড়ো হয়েছে।

- Advertisement -

ওই প্রতিবেদন অনুসারে, ২২ মার্চ দুপুর দু‘টোর দিকে ২০০০ মহিলা রিডলি সৈকতে হাজির হন। মনে করা হচ্ছে, স্ত্রী কচ্ছপগুলি একই সমুদ্র সৈকতে ফিরে আসে যেখানে তারা ডিম দেয়। অন্য একটি ইংরেজি দৈনিকে বলা হয়েছে, লকডাউনে মানুষকে তাদের বাড়িতে থাকতে বাধ্য করেছে এবং এর কারণে প্রায় আট লক্ষ অলিভ রিডলি গহিরমাথা সৈকতে পৌঁছেছে। এই সৈকতটি প্রায় ৬ কিলোমিটার দীর্ঘ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মঙ্গলবার ৭২,১৪২টিরও বেশি অলিভ রিডলি বাসা বাঁধতে এবং ডিম দেওয়ার জন্য সমুদ্র সৈকতে পৌঁছেছে।

প্রতিটি বাসাতে গড়ে ১০০টি ডিম থাকে এবং তাদের সমাপ্তির সময়কাল প্রায় ৪৫ দিন। বন বিভাগের দাবি, এই বছর কচ্ছপের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ছিল। লকডাউনের কারণে পর্যটকদের এই সমুদ্র সৈকতে যাওয়ার অনুমতি নেই। তবে গবেষক ও পরিবেশবিদদের এ থেকে ছাড় দেওয়া হয়েছে। দেশে করোনা ভাইরাসের ঘটনা দ্রুত বাড়ছে। ওডিশাসহ দেশের বেশিরভাগ রাজ্যে ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের খবর পাওয়া গিয়েছে। করোনা ভাইরাসে সংক্রামিত রোগীর সংখ্যা সারা দেশে প্রায় 900 এর কাছাকাছি পৌঁছেছে৷ এখনও পর্যন্ত 19 জন এই ভাইরাসের কারণে মারা গিয়েছে৷