মালদা, ৭ ডিসেম্বরঃ ‘যুবতিকে ধর্ষণ করে খুনের ঘটনায় পুলিশ ইচ্ছাকৃতভাবে ধর্ষণের অভিযোগ উল্লেখ করছে না।’ শনিবার মালদায় এসে এমনই অভিযোগ তুললেন বিজেপির মহিলা মোর্চার সভানেত্রী তথা সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। তিনি বলেন, ‘পুরো ঘটনাটি পুলিশ ও রাজ্য সরকার ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে। এমনকি, পুলিশ মৃতের পরিচয় জেনেও গোপন করে রেখেছে।’ পাশাপাশি হরিশ্চন্দ্রপুরের ঘটনার নিন্দাও করেন সাংসদ। এদিন প্রথমে মালদা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন হরিশ্চন্দ্রপুরের নির্যাতিতা শিশুকন্যাকে দেখতে যান সাংসদ লকেট চট্টোপাধ্যায়। নির্যাতিতা শিশুর মা ও মেডিকেলের সুপারের সঙ্গে কথা বলেন তিনি। মালদা মেডিকেল থেকে বেরিয়ে তিনি ইংরেজবাজারের কোতুয়ালির ধানতলা গ্রামে যান। সেখান থেকেই উদ্ধার হয়েছিল ওই যুবতির অগ্নিদগ্ধ দেহ। সাংসদ বলেন, ‘ঘটনার তিনদিন পেরিয়ে গেলেও এখনো পুলিশ মৃতের পরিচয় জানতে পারেনি। ঘটনায় অভিযুক্তরাও এখনো অধরা।’