মধ্যপ্রদেশ মন্ত্রিসভায় অনুমোদিত লাভ জিহাদ বিরোধী বিল

237

নয়াদিল্লি: ১৯৬৮ সালে ধর্মীয় স্বাধীনতা বিলের পরিবর্তে নতুন বিলো আনল মধ্যপ্রদেশ সরকার। শনিবার মধ্যপ্রদেশের মন্ত্রিসভায় অনুমোদন পেল লাভ জিহাদ বিল। বিলে বলা হয়েছে, কোনও মহিলা বা সংখ্যালঘুদের জোর করে ধর্মান্তর করলে ২ থেকে ১০ বছর জেল হবে।

মধ্যপ্রদেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী নরোত্তম মিশ্র বলেন, মধ্যপ্রদেশ ধর্মীয় স্বাধীনতা বিল ২০২০ অনুযায়ী কোনও নাবালক, মহিলা, তফশিলি জাতি ও উপজাতির কোনও ব্যক্তিকে জোর করে ধর্মান্তরিত করলে ন্যূনতম ২ থেকে ১০ বছরের জেল হবে এবং ন্যূনতম জরিমানা ৫০ হাজার টাকা। মন্ত্রিসভায় পাশের পর এবার বিল পেশ করা হবে মধ্যপ্রদেশের বিধানসভায়।

- Advertisement -

প্রস্তাবিত আইনে বলা হয়েছে, মধ্যপ্রদেশের কোনও ব্যক্তি বিয়ের মাধ্যমে বা অন্য কোনও প্রতারণামূলক উপায়ে কাউকে প্ররোচনা দিয়ে বা ভয় দেখিয়ে ধর্মান্তর করতে পারবে না। মুখ্যমন্ত্রী শিবরাজ সিংহ চৌহান জানিয়েছেন, বিভ্রান্তি, লোভ, হুমকি বা বিয়ের মাধ্যমে অন্য ব্যক্তিকে ধর্মান্তরিত করলে অভিযুক্তের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে। ধর্মান্তরের শিকার হয়েছেন এমন কারোর বাবা, মা বা আত্মীয়রাও অভিযোগ দায়ের করতে পারেন।

আইন অনুযায়ী বিয়ের জন্য কোনও একজনের ধর্মন্তর করা বাতিল এবং অকার্যকর বলে বিবেচিত হবে। কেউ ধর্মান্তর করতে চাইলে তাঁকে অন্তত দুমাস আগে জেলা প্রশাসনের কাছে আবেদন করতে হবে।

দেশের প্রথম রাজ্য হিসেবে লাভ জিহাদ বিরোধী অর্ডিন্যান্স জারি করে উত্তরপ্রদেশ। যোগী রাজ্যের রাজ্যপাল আনন্দিবেন প্যাটেল অর্ডিন্যান্স জারি করেন। এর মাধ্যমে লাভ জিহাদ বিরোধী আইন কার্যকর হয় উত্তরপ্রদেশে।