ময়নাগুড়ি পুরসভার নোটিফিকেশন জারি, খুশি বাসিন্দারা

194

ময়নাগুড়ি: দীর্ঘ প্রতীক্ষার অবসান। অবশেষে ময়নাগুড়ি পুরসভার নোটিফিকেশন জারি হল। বৃহস্পতিবার রাতে এবিষয়ে কলকাতা থেকে সরাসরি ময়নাগুড়ি বিডিও অফিসে মেসেজ এসে পৌঁছোয়। বিষয়টি জানাজানি হতেই ময়নাগুড়িতে খুশির হাওয়া। এদিন রাতে তৃণমূল কংগ্রেস নেতা-কর্মীরা ময়নাগুড়িতে মিছিল করেন এবং আতশবাজি পোড়ান। ময়নাগুড়ির অসংখ্য মানুষ এসে বাজারের ট্রাফিক মোড়ে ভিড় জমান। সেখানে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীরা স্লোগান দিতে থাকেন।

ময়নাগুড়ির বিডিও শুভ্র নন্দী বলেন, ‘কিছুক্ষণ আগেই এই বার্তা পেয়েছি। নোটিফিকেশন জারি করা হয়েছে। পরবর্তীতে প্রয়োজনীয় সমস্ত রকম নির্দেশ মেনেই পদক্ষেপ করা হবে।‘

- Advertisement -

ময়নাগুড়ি–১ ব্লক তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি মনোজ রায় বলেন, ‘গত বছর ৫ ডিসেম্বর জলপাইগুড়িতে রাজ‍্যের মুখ‍্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ময়নাগুড়িকে পুরসভায় উন্নীত করার কথা ঘোষণা করেন। এদিন নোটিফিকেশন জারি করা হয়েছে। এটা অত‍্যন্ত আনন্দের খবর। পুরসভা হয়ে গেলে ময়নাগুড়ির যেসব সমস্যা আছে, সেগুলির সহজেই সমাধান হবে বলে আশা করছি আমরা। এখানকার মানুষের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল পুরসভার। মুখ‍্যমন্ত্রী সেই দাবিকে মান‍্যতা দিয়েছেন। তাঁকে অভিনন্দন।‘

ময়নাগুড়ির বিধায়ক অনন্তদেব অধিকারী বলেন, ‘এটা এলাকার জনগণের দাবি ছিল। আমরা আগেই বলেছি, মুখ‍্যমন্ত্রী ঘোষণা করেছেন পুরসভা হবেই। কটাক্ষ করেছিল বিরোধীরা। অবশেষে নোটিফিকেশন জারি হল। মুখ‍্যমন্ত্রীকে ধন্যবাদ।

ময়নাগুড়ি বাজার ব‍্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক বজরংলাল হিরাউত বলেন, ‘এলাকাবাসীর দীর্ঘদিনের দাবি ছিল পুরসভার। ময়নাগুড়ির বেশ কিছু সমস্যা রয়েছে। পুরসভা না হলে সেগুলির সমাধান সম্ভব নয়।‘

মূলত ময়নাগুড়ি শহর, খাগড়াবাড়ি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের একাংশ, মাধবডাঙ্গা-১ গ্রাম পঞ্চায়েত এবং দোমোহনি-১ গ্রাম পঞ্চায়েতের একাংশ নিয়ে পুরসভা গঠন হচ্ছে। এলাকার মোট জনসংখ্যা ৪৫ হাজার ৪৫ জন।