চাঁদা তুলে শৌচাগার তৈরি মাকরাপাড়ায়

110

বীরপাড়া: বীরপাড়া থানার ভুটান সীমান্তের মাকরাপাড়া কালীমন্দির চত্বরে শৌচাগার নেই। ঐতিহ্যবাহী ওই মন্দিরে পুজো দিতে গিয়ে সমস্যায় পড়তে হয় দূর-দূরান্ত থেকে আসা পুণ্যার্থীদের। প্রতি বছর ওই মন্দিরে হাজার হাজার পুণ্যার্থীর সমাগম হলেও পঞ্চায়েতের তরফে শৌচাগার তৈরি করা হয়নি। অবশেষে সমস্যার সমাধানে এগিয়ে এলেন স্থানীয় যুবকরা।

কিছুদিন আগে এলাকার যুবকরা তৈরি করেছেন মাকরাপাড়া যুব কমিটি নামে একটি সমাজসেবী সংগঠন। এলাকায় জঞ্জাল সাফাই, সচেতনতামূলক প্রচারাভিযানের মতো কর্মসূচির আয়োজন করে থাকেন তাঁরা। বৃহস্পতিবার থেকে মন্দিরের পাশে শৌচাগার তৈরির কাজ শুরু করেছেন তাঁরা। আয়োজকদের মধ্যে কিশোর কুর্মী, বিশাল সাহা, ঋতু থাপা প্রমুখ জানান, শৌচাগার তৈরির জন্য তাঁরা চাঁদা তুলছেন। সমস্যা নিরসনে পুণ্যার্থীরাও চাঁদা দিচ্ছেন। মহিলা ও পুরুষদের জন্য আলাদা আলাদা শৌচাগার তৈরি করা হচ্ছে। যুবকদের ওই উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন মন্দিরের পুরোহিত সন্দীপ চক্রবর্তী। এদিকে বীরপাড়া ২ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের উপপ্রধান তথা ওই এলাকার গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্যা ডেইজি থাপা’র বক্তব্য, এতদিন স্থানাভাবেই পঞ্চায়েতের তরফে শৌচাগার তৈরি করা সম্ভব হয়নি। তবে ওই যুবকদের ব্যক্তিগতভাবে দশ হাজার টাকা চাঁদা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন ডেইজিদেবী।

- Advertisement -