কোভিডবিধি মেনে বড়দিনের আগে সেজে উঠছে মাল শহর

182

মালবাজার: কোভিড বিধি মেনেই বড়দিনকে সামনে রেখে সেজে উঠছে মাল শহর। আলোকসজ্জায় সাজিয়ে তোলা হচ্ছে গোটা শহরকেই। তার আগে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। তবে, শুধু আলোকসজ্জা নয় বড়দিনকে সামনে রেখে কচিকাচাদের জন্য থাকছে বিনোদনের সুবন্দোবস্তও। অন্যদিকে, পুরসভার তত্ত্বাবধানে শুক্রবার থেকেই শহরের কলোনির মাঠে শুরু হবে শিল্প মেলা। সেখানেও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং অন্যান্য বিনোদনেরও ব্যবস্থা থাকবে।

বড়দিনকে সামনে রেখে আলোকসজ্জায় সেজে উঠবে শহরের সুভাষ মোড় থেকে ঘড়ি মোড় পর্যন্ত এলাকা।যদিও আকর্ষণ বাড়াতে ঘড়িমোড়ে বিশেষ সাজসজ্জার বন্দোবস্ত থাকবে। কচিকাচাদের নজর কাড়তে সেখানে উপস্থিত থাকবে সান্তাক্লজ। অন্যদিকে, শহরের বি এল উচ্চ বিদ্যালয়স্থিত আওয়ার লেডি অফ রোজারিও চার্চেও চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। চার্চের তরফে ফাদার সুশীল টোপ্পো জানিয়েছেন, এবার করোনা প্রতিরোধের নিয়ম-শৃঙ্খলা মেনেই বড়দিনের প্রার্থনা শুরু হবে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ছ’টা থেকে। আটটার মধ্যে প্রার্থনা পর্বের যাবতীয় কাজ সম্পন্ন করা হবে। কেবলমাত্র শহর এবং লাগোয়া এলাকার বাসিন্দারাই চার্চের প্রার্থনাতে অংশ নিতে পারবেন।

- Advertisement -

এদিকে করোনার আবহ কাটিয়ে শেষ পর্যায়ে বড়দিনের কেনাকাটাও প্রায় জমে উঠেছে। বেড়েছে কেক বিক্রিও। শহরের প্রবীণেরা অবশ্য অতীতের বড়দিনের স্মৃতি নিয়ে এখনও নস্টালজিক। শহরের আনন্দপল্লী বাসিন্দা তথা প্রবীণ নাগরিক বিদ্যুৎ সরকার বলেন, ‘অতীতে বড়দিনে জনজোয়ার তৈরি হত। মেলা, সার্কাস সবই থাকত। এখন আর সেই দিন নেই। আমার বাবা রেলে কর্মরত ছিলেন। বড়দিনের ছুটির সময় উৎসবে অংশ নিতে আমরা মাল বাজারে চলে আসতাম। বছরভর এর জন্য অপেক্ষা চলত।’ স্টেশন রোডের প্রবীণ ব্যবসায়ী স্বপন ঘোষ বলেন, ‘এবার করোনা আবহ সত্বেও বড়দিনের কেনাকাটা জমেছে। এটাই আশার বিষয়।’