গরিব কল্যাণ যোজনায় অন্তর্ভুক্তি মালদা

240

গাজোল: পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে আন্দোলন করে বড় জয় পেয়েছে কংগ্রেস। কংগ্রেসের দাবির পক্ষে সহমত পোষণ করেছে কলকাতা হাইকোর্ট। আর তারই জেরে মালদা জেলাকে কেন্দ্রীয় সরকারের ‘গরিব কল্যাণ যোজনার’ অন্তর্ভুক্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এর ফলে স্বাভাবিকভাবেই লাভ হবে পরিযায়ী শ্রমিকদের।

আর এই ঘটনা থেকে এটাই পরিষ্কার যে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে কোনো ভাবনা চিন্তা নেই কেন্দ্রের শাসক দল বিজেপি, কিংবা রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের। এই সমস্ত পরিযায়ী শ্রমিকদের ওরা কেবল ভোটব্যাঙ্ক হিসেবেই বিবেচিত করে আসছে। কিন্তু পরিযায়ী শ্রমিকদের দাবি-দাওয়া নিয়ে কংগ্রেস ময়দানে ছিল আগামী দিনেও থাকবে।

- Advertisement -

এই বিষয় নিয়ে এদিন গাজোল ব্লক কংগ্রেসের পক্ষ থেকে ব্লক কংগ্রেসের কার্যালয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এদিনের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিধায়ক তথা মালদা জেলা কংগ্রেসর প্রাক্তন সভাপতি মোস্তাক আলম, জেলা কংগ্রেস নেতা মাসুদ আলম, ব্লক কংগ্রেস সভাপতি আরতি সরকার, সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির, কংগ্রেস নেতা পঙ্কজ রায় সহ অন্যান্যরা।

বিধায়ক মোস্তাক আলম এবং কংগ্রেস নেতা মাসুদ আলম বলেন, পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে প্রথম থেকেই আন্দোলন করে আসছে কংগ্রেস। পরিযায়ী শ্রমিকদের বিভিন্ন সুবিধা দানের জন্য দেশের বহু জেলাকে গরিব কল্যাণ যোজনার আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। কিন্তু আশ্চর্যজনকভাবে কয়েক লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিক থাকা সত্ত্বেও মালদা জেলাকে এই প্রকল্পের আওতায় বাইরে রাখা হয়েছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে এবং মালদা জেলাকে গরিব কল্যাণ যোজনার আওতায় নিয়ে আসার জন্য ব্লক প্রশাসন এবং জেলা প্রশাসককে স্মারকলিপি দিয়েছিল কংগ্রেস। বেশকিছু পরিযায়ী শ্রমিকের তালিকা ও তুলে দেওয়া হয়েছিল।

তিনি আরও জানান, কিন্তু তারপরেও সেরকমভাবে কোন কাজ না হওয়ায় আদালতে মামলা দায়ের করা হয়। সেই মামলায় রায় হয়েছে তাদের পক্ষে। যে সমস্ত শ্রমিকের নাম ছাড়া পড়েছে নতুন করে তাদের নাম ও তালিকাভুক্ত করা হচ্ছে। এদিন পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে আয়োজিত সভায় এই বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে। কংগ্রেস কর্মীদের আমরা বলেছি প্রতিটি বুথে বুথে গিয়ে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে কংগ্রেসের যে আন্দোলন সে সম্পর্কে গ্রামের মানুষকে বোঝাতে হবে। পরিযায়ী শ্রমিকদের বিভিন্ন দাবি-দাওয়া নিয়ে কংগ্রেস লড়াইয়ের ময়দানে ছিল, আছে এবং থাকবে।